১ দিনে নগদে লেনদেন সাড়ে ৯০০ কোটি টাকা

প্রকাশিত: এপ্রিল ৩০, ২০২২; সময়: ২:১৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদের দৈনিক লেনদেনের পরিমাণ হাজার কোটি টাকা ছুঁইছুঁই। বৃহস্পতিবার ৯৫২ কোটি ৭১ লাখ টাকার বেশি লেনদেন হয়েছে নগদে।

এতদিন গড়ে ৭০০ থেকে সাড়ে ৭০০ কোটি টাকা লেনদেন হলেও ঈদের আগের এই সময়টাতে লেনদেনের পরিমাণ বাড়তে থাকে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে নগদ।

সার্ভিসটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, “উদ্ভাবনী প্রচেষ্টার অগ্রযাত্রায় মাত্র তিন বছরের মধ্যে ‘নগদ’ সাড়ে ৯০০ কোটি টাকা লেনদেনের মাইলফলক ছুঁয়েছে। এটি আমাদের জন্য অনেক আনন্দের একটি সময়।”

তিনি বলেন, “বরাবরই ঈদের সময় মানুষ অনেক বেশি লেনদেন করে, তবে এখন মানুষ আর ছাপানো টাকা খুব একটা বহন করতে চায় না। সে কারণে মোবাইল লেনদেন বিশেষ করে ‘নগদ’ জনপ্রিয় হচ্ছে।”

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কার্যক্রম শুরুর তিন বছরে এক দিনে লেনদেন হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি চলে আসাকে নগদের আধুনিক সেবা এবং বাংলাদেশে ক্যাশলেস সমাজ প্রতিষ্ঠার বড় পদক্ষেপ বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

তারা বলছেন, মূলত ঈদ সামনে রেখে ব্যক্তি ও ব্যবসায়িক পর্যায়ের লেনদেন অনেক বেড়েছে। ঈদের মৌসুমে কেনাকাটা, বেতন-ভাতা পরিশোধ এবং প্রিয়জনের জন্য ঈদের খরচ পাঠানোর ক্ষেত্রে এখন নগদকে বেছে নিয়েছেন বিপুলসংখ্যক মানুষ। সে কারণে লেনদেনের পরিমাণ এতটা বেড়েছে।

সাড়ে ৯০০ কোটি টাকা লেনদেনের মধ্যে এজেন্টের মাধ্যমে সরাসরি ক্যাশ-ইন হয়েছে ২২০ কোটি টাকার বেশি। কার্ড এবং ব্যাংক থেকে অ্যাড মানি হয়েছে আরও ১০ কোটি টাকা। সরকারি ভাতা ও অন্যান্য সহায়তা বিতরণ পৌনে ৩০০ কোটি টাকার বেশি।

বৃহস্পতিবার সব মিলে ক্যাশ আউট হয়েছে ২৩৭ কোটি টাকা। পিটুপি এবং মার্চেন্ট পেমেন্ট মিলে আরও প্রায় ২০০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

২০১৯ সালের ২৬ মার্চ উদ্বোধনের পর ১০ মাসে এক কোটি গ্রাহক ছাড়ায় নগদে। পরের এক কোটি গ্রাহক পেতে সময় লাগে ছয় মাস। দুই কোটি থেকে তিন কোটিতে আসতে সময় লাগে আরও সাত মাস।

আর শেষ এক কোটি গ্রাহক পেতে সময় লেগেছে দুই মাসেরও কম সময়। এক দিনে নগদ প্রথম ৫০০ কোটি টাকার লেনদেন করে ২০২১ সালের ৬ মে। ওই মাসে ৬০০ কোটি এবং ৭০০ কোটি টাকার লেনদেনের অঙ্ক পেরিয়ে যায় সার্ভিসটি।

নগদের দ্রুতগতির অগ্রযাত্রাকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন এবং গ্রাহকবান্ধব সেবা চালু করার সফল সম্মিলন বলে মনে করেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

তিনি বলেন, “প্রচলিত সব পরিষেবা যাতে নগদে পাওয়া যায়, তার জন্য আমরা কাজ করছি। আর সে জন্য প্রতিদিনই আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। *১৬৭# নম্বরে ডায়াল করে পিন সেট করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খোলা পৃথিবীর আর কোথাও না থাকলেও ‘নগদ’ সেটি সম্ভব করেছে।

“অথচ একসময় একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে কত কিছুই না করতে হতো। এসব কারণেই নগদে লেনদেন বাড়ছে।”
গ্রাহক নিবন্ধনের জন্য দেশের আর্থিক খাতে প্রথমবারের মতো ই-কেওয়াইসি চালু করে নগদ। বর্তমানে সার্ভিসটির গ্রাহকসংখ্যা ৬ কোটি ২৫ লাখের বেশি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে