ঈদের আগে শেষ কার্যদিবসে শেয়ারবাজারে দরপতন

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৮, ২০২২; সময়: ১:০৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঈদের আগের শেষ কার্যদিবসে বড় দরপতন চলছে শেয়ারবাজারে। লেনদেন শুরুর দেড় ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে ৬৫ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল।

বিপরীতে দর হারিয়ে কেনাবেচা হচ্ছিল ২৫৬ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। দর অপরিবর্তিত ছিল ৫১টির। অধিকাংশ শেয়ারের দরপতনে ডিএসইএক্স সূচক এ সময় ৪৩ পয়েন্ট হারিয়ে ৬৬৩৪ পয়েন্টে অবস্থান করছিল।

সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ৩২০ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। লেনদেন চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত।

শেয়ারবাজার পরিস্থিতি অনেকদিনই ভালো যাচ্ছে না। নানা ইস্যুতে দরপতন চলছিল। মাঝে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি সরাসরি হস্তক্ষেপ করে টানা দরপতন বন্ধ করেছিল। এখন আবার আগের অবস্থায়।

বেলা সাড়ে ১১টায় সব খাতেরই অধিকাংশ শেয়ার দর হারিয়ে কেনাবেচা হচ্ছিল। বড় খাতগুলোর মধ্যে সার্বিক হিসাবে এ সময় সোয়া ১ শতাংশ দর হারিয়ে দরপতনের শীর্ষে ছিল প্রকৌশল খাত।

লেনদেনে আসা এ খাতের ৪১ শেয়ারের ৩২টি দর হারিয়ে কেনাবেচা হতে দেখা যায়।

ছোট খাতের মধ্যে সিমেন্ট খাতের দরপতন ছিল সর্বাধিক দেড় শতাংশ। প্রায় ৬ শতাংশ দর হারিয়ে এ সময় দরপতনের শীর্ষে ছিল সাউথবাংলা এগ্রিকালাচারল ব্যাংক এবং হেইডেলবার্গ সিমেন্ট।

৪ থেকে ৫ শতাংশ পর্যন্ত দর হারিয়ে দরপতনের শীর্ষে ছিল- অলটেক্স, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্স, মির আকতার লিমিটেড, শ্যামপুর সুগার মিলস, সী পার্ল হোটেল এন্ড রিসোর্ট, সাভার রিফ্যাক্টরিজ, বিআইএফসি, একমি পেসটিসাইডস, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ এবং ক্রাউন সিমেন্ট।

সার্বিক দরপতনের মধ্যেও প্রায় ১০ শতাংশ দরবৃদ্ধি নিয়ে শীর্ষে বছরের পর বছর বন্ধ থাকা বিডি ওয়েল্ডিং। সাড়ে ৬ শতাংশ দরবৃদ্ধি নিয়ে এর পরের অবস্থানে ছিল ইউনিক হোটেল। সাড়ে ৪ শতাংশ দরবৃদ্ধি নিয়ে পরের অবস্থানে এপেক্স ফুডসের শেয়ারকে দেখা যায়।

শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা জানান, গত কিছুদিন ধরে লেনদেনের শেষ পর্যায়ে বিক্রি কমানোর চাপ দিয়ে সূচকের পতন ঠেকিয়ে আসছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এভাবে শেয়ারদর বা সূচকের পতন কৃত্রিমভাবে বেশিদিন ঠেকিয়ে রাখা যায় না বলেও মন্তব্য করেন তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে