শেয়ারবাজারে ব্যাপক দরপতন

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২২; সময়: ১২:৩৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : দিনের লেনদেনের শুরুতেই ব্যাপক দরপতন হয়েছে দেশের শেয়ারবাজারে।

সোমবার লেনদেন শুরুর এক ঘণ্টা পর সকাল ১১টায় প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে লেনদেনে আসা ৩৭১ শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৩২৬টি বা ৮৭ শতাংশই দর হারিয়ে কেনাবেচা হচ্ছিল।

এর মধ্যে ২৩২ শেয়ারই সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন দরে কেনাবেচা হতে দেখা গেছে। এসব সার্কিট ব্রেকারের কারণে এসব শেয়ারের দর সোমবার আর কমে কেনাবেচার সুযোগ নেই।

কিন্তু এমন দরে অন্তত পৌনে দু’শ কোম্পানির শেয়ারের কোনো ক্রেতা ছিল না। বিপরীতে মাত্র ২২টি বা ৬ শতাংশ দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল। দর অপরিবর্তিত অবস্থায় কেনাবেচা হচ্ছিল ২৩টি। বেলা ১১টা পর্যন্ত ডিএসইতে ১৫৭ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে।

সিংহভাগ শেয়ারের দরপতনে প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৭৮ পয়েন্ট হারিয়ে ৬৪৭৬ পয়েন্টে নেমেছে।

দরপতন রুখতে গত ৯ মার্চ সকল শেয়ারের সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২ শতাংশে নামানো হয়। অর্থাৎ নির্দিষ্ট দিনে কোনো শেয়ারের দাম ২ শতাংশের বেশি কমতে পারবে না।

এ নিয়ম চলতি দরপতনের প্রধান কারণ বলে মনে করছেন শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা।

দরপতন রুখতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি ব্রোকারেজ হাউস ও মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোকে চাপ দিয়ে শেয়ার বিক্রির আদেশ প্রত্যাহার করতে এবং শেয়ার কিনতে বাধ্য করছে বলেও অভিযোগ মিলছে।

দ্বিতীয় শেয়ারবাজার সিএসইতেও একইভাবে দরপতন হতে দেখা গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে