মাসে ২ হাজার টাকা পাবে ২০ লাখ পরিবার

প্রকাশিত: মে ৮, ২০২০; সময়: ১২:১৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : করোনা সংকট মোকাবেলায় বাংলাদেশকে ৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। বর্তমান বাজার দরে টাকার অঙ্কে এর পরিমাণ ৪ হাজার ২৫০ কোটি টাকা। করোনা সংকট মোকাবিলায় এডিবির কাছে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে সহযোগিতার অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতেই এ অর্থ অনুমোদন করেছে সংস্থাটি।

বৃহস্পতিবার (০৭ মে) দুপুরে ফিলিপাইনের ম্যানিলায় সংস্থাটির সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য দিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক।

এডিবির অর্থে করোনাকালীন জরুরি সহায়তা হিসেবে প্রায় ২০ লাখ গরিব পরিবারকে মাসে ২৩ ডলার বা প্রায় ২ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। এ ছাড়া মাসে ২০ কেজি করে খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে ১০ লাখ পরিবারকে। সব মিলিয়ে এই কর্মসূচির আওতায় প্রায় দেড় কোটি মানুষ উপকৃত হবে।

এডিবির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট মাসাতসুগু আসাকাওয়া বলেন, করোনার ভাইরাসের প্রভাবে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে বাংলাদেশ সরকারের নেওয়া উদ্যোগে গতি আনতে এডিবি এই অর্থ সহায়তা দিচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে এডিবি প্রেসিডেন্ট মাসাতসুগু আসাকাওয়া বলেন, আমরা জানিনা এই সঙ্কট কতদিন থাকবে এবং তা বিশ্ব অর্থনীতিকে কীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। তবুও সম্ভাব্য অর্থনৈতিক নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলায় এডিবি কাজ করে যাচ্ছে।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের অর্থনৈতিক পদক্ষেপে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে এডিবি জানায়, করোনা মহামারি এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় বড় ধরনের আঘাত হানতে পারে।

এতে করে এ অঞ্চলে দারিদ্র্য আরও বাড়তে পারে এবং দেখা দিতে পারে অর্থনৈতিক মন্দা। উন্নয়নশীল দেশ ও বিভিন্ন বেসরকারি খাতকে মহামারি মোকাবিলায় দ্রুততার সঙ্গে প্রতিশ্রুত আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ সরবরাহ করা হচ্ছে।

এডিবির প্রায় ৮.৭০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তায় ৬৩টি প্রকল্প বর্তমানে চলমান রয়েছে বাংলাদেশে। পাইপলাইনে রয়েছে আরও প্রায় ৯ দশমিক ৯৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তার ৮১টি প্রকল্প।

এর আগে গত ৩ এপ্রিল করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ১০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল এডিবি। করোনা মোকাবিলায় তাৎক্ষনিক কেনাকাটায় বিশেষ করে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি, টেস্টিং সামগ্রি, চিকিৎসা অবকাঠামো তৈরি ও আধুনিকায়নে এই অর্থ খরচ করা হবে।

এই প্রকল্পের আওতায় ১৭ টি মেডিকেল কলেজে আইসোলেশন ও বিশেষ নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। এ ছাড়া স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এ ছাড়া গত মার্চ মাসে সাড়ে তিন লাখ ডলার অনুদানও দিয়েছে এডিবি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • রাজশাহীতে প্রতিদিন ৯৫ জন করে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত
  • কোরবানির হাট নিয়ে স্বাস্থ্যবিদদের শঙ্কা
  • মেয়র লিটনের আরেকটি নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন শুরু
  • ড্যান ড্যান, বাঁ বাঁ, যা যা, হুট হাট আর শোনা যায় না
  • দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনার নতুন রূপ
  • বিমান বাহিনীতে যুক্ত হলো নাইট ভিশন গগলস
  • করোনা রেড জোনে রাজশাহীর ৫ উপজেলা
  • পাটকল শ্রমিকরা সাড়ে ১৩ লাখ টাকা করে পাবেন
  • রামেক হাসপাতালের ৬৭ জন চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত
  • বাংলাদেশে করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার
  • রাজশাহীতে সাত দিনেই বেড়েছে দ্বিগুণ করোনা রোগি
  • দোকান-শপিংমল খোলা রাখার সময় বৃদ্ধি
  • করোনার কার্যকরী ভ্যাকসিন পাওয়ার নিশ্চয়তা নেই: ফাউচি
  • হলি আর্টিজান হামলার ৪ বছর
  • চীনে নতুন ভাইরাস আবিষ্কার, আরেক মহামারির শঙ্ক
  • উপরে