বঙ্গবন্ধুর খুনি খন্দকার মোশতাকের ছেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

প্রকাশিত: আগস্ট ২৫, ২০২১; সময়: ৮:৩৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যাকাণ্ডের অন্যতম কুশীলব খন্দকার খন্দকার মোশতাক আহমদের ছেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন কুমিল্লার একটি আদালত। জালিয়াতি করে পরিবারের সদস্যদের সম্পত্তি বিক্রিসহ একাধিক প্রতারণার অভিযোগে মোশতাকের ছেলে খন্দকার ইশতিয়াক আহমেদ বাবুর বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি করা হয়।

মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) বিকেলে কুমিল্লার ৩ নম্বর আমলী আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলাম মাহবুব খাঁন এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ইশতিয়াককে গ্রেপ্তারে দাউদকান্দি থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন।

বুধবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাদীপক্ষের আইনজীবী এডভোকেট ইফতেখার আহমেদ।

মামলার বাদী খন্দকার জাবির আহাম্মেদ সারোয়ার অভিযোগ করে বলেন, খুনি মোশতাকের ছেলে খন্দকার ইশতিয়াক আমাদেরকে ন্যায্য হিসেব থেকে বঞ্চিত করছেন। তিনি কানাডায় বসে দশপাড়া এলাকায় একটি সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ন্ত্রণ করছেন। আমাদের ওয়ারিশদের সই জাল করে বেশকিছু সম্পত্তি বিক্রি করেছেন। এছাড়া আরও কিছু সম্পত্তি বিক্রির পাঁয়তারা করছে। তার নির্দেশে এসব জালিয়াতির কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন মোশতাকের বাড়ির কেয়ারটেকার নিজামুদ্দিন।

তিনি আরও বলেন, কেয়ারটেকার নিজামুদ্দিনই মোশতাকপুত্রের সব নির্দেশনা বাস্তবায়ন করে থাকেন। কানাডায় বসে ওই কেয়ারটেকারের মাধ্যমেই বাহিনী নিয়ন্ত্রণসহ এলাকার আধিপত্য ধরে রেখেছেন ইশতিয়াক।

এ বিষয়ে দাউদকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা যতটুকু জানি মামলায় অভিযুক্ত আসামি খন্দকার ইশতিয়াক আহমেদ বাবু বিদেশে পলাতক আছেন। তারপরেও গ্রেপ্তারি পরোয়ানার কপি হাতে পেলে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১৯৭৫ সালে সপরিবারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিহত হওয়ার পর রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন খন্দকার মোশতাক। মাত্র ৮৩ দিন ক্ষমতায় থাকতে পেরেছিলেন তিনি। এরপর খালেদ মোশাররফের অভ্যুত্থানে তাকে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে হয়।

 

  • 40
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে