রাণীনগরে মাটি ফেলে স্কুলের প্রবেশ পথ বন্ধ করার অভিযোগ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৫, ২০২২; সময়: ৬:০১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাণীনগর : নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার চকমুনু গ্রামে দারুল ইহসান কিন্ডার গার্টেন মাদ্রাসা ও নূরানী স্কুলের প্রবেশ পথ মাটি ফেলে বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। শুক্রবার রাতে ট্রাক্টর দিয়ে মাটি ফেলে পথ বন্ধ করা হয় বলে অভিযোগ তুলেছেন পরিচালক ময়নুল হোসেন।

ময়নুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান,গত ২০০৩ সালে এলাকায় ধর্মীয় ও আধুনিক শিক্ষা বিস্তারের লক্ষে চকমুনু গ্রামে প্লে-৮ম শ্রেনী পর্যন্ত কিন্ডার গার্টেন মাদ্রাসা ও নূরানী স্কুল খোলেন। সে সময় থেকে স্কুলটি পরিচালিত হয়ে আসছে।

বর্তমানে বিদ্যালয়ে প্রায় ৪৫০জন শিক্ষার্থী রয়েছে। এরই মধ্যে আপন বড় ভাই মমতাজ জায়গার স্কুলটি বন্ধ করতে নানান রকম জটিলতা সৃষ্টি করছে। স্কুলটি বন্ধ করে দিতে হঠাৎ করেই শুক্রবার গভীর রাতে ট্রাক্টর দিয়ে মাটি ও বালু ফেলে স্কুলের প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেয়।

এর পর সকালে ফেলে রাখা মাটি একপাশ থেকে সরেফেলে কোন রকমে স্কুলে প্রবেশের রাস্তা বের করা হয়। তিনি আরো জানান,তার বাড়ীর অংশের সাথে বড় ভাই মমতাজের অংশ ক্রয় করে বায়নানামা করেন। কিন্তু বায়নানামার পর থেকে বড় ভাই আর জায়গা রেজিস্ট্রি করে দিচ্ছে না। ফলে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছি।

এব্যাপারে ময়নুলের বড় ভাই মমতাজ হোসেন বলেন,আমার জায়গা আত্মসাৎ করার জন্য ছোট ভাই ময়নুল হোসেন মিথ্যে বায়নানামা তৈরি করে আমাকে হয়রানি করাচ্ছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার পাচ্ছিনা। তাই সমাধানের লক্ষে মাটি ফেলেছি।

রাণীনগর থানার ওসি মো: শাহিন আকন্দ বলেন,খবর পেয়ে সেখানে সকালে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। ওই স্কুলের জায়গা নিয়ে আদালতে মামলা রয়েছে। সেখানে যেন আইন শৃংখলার অবনতি না হয় সে ব্যাপারে উভয় পক্ষকে বলা হয়েছে। তবে এঘটনায় এখনো কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে