রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ভিসির যোগদান

প্রকাশিত: আগস্ট ২৯, ২০২১; সময়: ১১:৫১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) নতুন উপাচার্য পদে নিয়োগ পেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার তাপু।

রোববার (২৯ আগস্ট) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মাহমুদুল আলম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক ড. আজিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিকেল ৪টায় নবনিযুক্ত উপাচার্য কর্মস্থলে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করেন।

তিনি বলেন, আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নিয়েই নতুন উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে অবস্থিত জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলকেও পুষ্পস্তবক অর্পণসহ মোনাজাত করেন। পরে তিনি শহীদ জাতীয় চার নেতার এ এইচ এম কামারুজ্জামানের কবরেও পুষ্পস্তবক অর্পণ ও মোনাজাত করেন। সেখান থেকে নগরীর মহিষবাথান গোরস্থানে অবস্থিত তাঁর (নতুন উপাচার্য) বাব-মায়ের কবর জিয়ারত করেন।

দায়িত্বে যোগদানের পর উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য তথা রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম নিরবিচ্ছিন্ন রাখাসহ সার্বিক প্রশাসন পরিচালনায় শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ সংশ্লিষ্ট সচেতন সমাজের সহযোগিতা কামনা করেন।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. চোধুরী মোহাম্মদ জাকরিয়া, অধ্যাপক ড. সুলতান-উল-ইসলাম, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. আব্দুস সালাম, কোধাষ্যক্ষ অধ্যাপক ড. একেএম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক তারেক নুর, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক ড. আজিজুর রহমান শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিশিষ্ট ভূতত্ত্ববিদ অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার ১৯৬২ সালে রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগ থেকে ১৯৮৪ সালে বিএসসি ও ১৯৮৫ সালে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন। উভয় পরীক্ষায় তিনি প্রথম শ্রেণি লাভ করেন।

১৯৯৬ সালে তিনি যুক্তরাজ্যের নিউক্যাসল আপনটাইম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃষি বিজ্ঞানে এমফিল ডিগ্রি ও ২০০১ সালে জার্মানির ড্রেসড্রেনের টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি থেকে পরিবেশ ব্যবস্থাপনা ও উন্নয়নে ডিপ্লেমা অর্জন করেন। ২০০৫ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হাইড্রোজিওলজিতে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

১৯৯০ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগে প্রভাষক পদে যোগ দেন ও ২০০৬ সালে অধ্যাপক পদে উন্নীত হন। ২০১৯ সালে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও পরিচালক পদে যোগ দেন। দীর্ঘ অধ্যাপনা জীবনে তিনি ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা, আবাসিক শিক্ষক, সহকারী প্রক্টর, নির্বাচিত সিনেট সদস্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যাথলেটিক্স ও এ্যাকুয়াটিক্স কমিটির সদস্যসহ অন্যান্য কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া তিনি জার্মানির ড্রেসড্রেন টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটিতে ভিজিটিং প্রফেসর ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ জিওলজিক্যাল সোসাইটি, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ফর এডভান্সমেন্ট অব সায়েন্স, বাংলাদেশ ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক্যাল এসোসিয়েশন, জার্মান ইউনিভার্সিটি এলামনাই এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ, হিমালয়ান ইউনিভার্সিটি কনসোর্টিয়ামসহ বেশ কয়েকটি পেশাজীবী প্রতিষ্ঠানের সদস্য।

অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তারের গবেষণার বিষয়ের মধ্যে আছে ভূগর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা, পানি ও মাটির মিথস্ক্রিয়া, মৃত্তিকা পদার্থ বিজ্ঞান, ভূগর্ভস্থ পানির মান পর্যবেক্ষণ, জলবায়ু পরিবর্তন, জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে ভূপৃষ্ঠের পানির সম্পর্ক ইত্যাদি। এযাবত তাঁর প্রায় ৩০টি গবেষণা প্রবন্ধ দেশ-বিদেশে প্রকাশিত হয়েছে। গত ১০ বছরে তিনি প্রায় ১৫টি আন্তর্জাতিক সেমিনার ও সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

অধ্যাপক সাত্তার দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন। তিনি বাংলাদেশ হার্ট ফাউন্ডেশন, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, রাজশাহী শ্যুটিং ক্লাব ও এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম টেনিস কমপ্লেক্সের আজীবন সদস্য। এছাড়া তিনি কাজীহাটা স্পোর্টিং ক্লাবের সহ-সভাপতি এবং এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম টেনিস কমপ্লেক্সের সভাপতি ছিলেন।

প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য ছিলেন। ১/১১-এ শেখ হাসিনার মুক্তির আন্দোলনে কারাবরণ করেন তিনি। তার বড়ভাই গোলাম মাহবুব সাত্তার মুক্তিযুদ্ধে পাকহানাদার বাহিনীর হাতে শহীদ হন। তিনি বিবাহিত ও এক পুত্রের জনক। তাঁর স্ত্রী ড. তানজিমা ইয়াসমিন প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ও বিভাগীয় সভাপতি।

উল্লেখ্য, গত ৭ মে থেকে অভিভাবক শূন্য ছিল দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিদ্যাপীঠ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। দীর্ঘ প্রায় ৩ মাস ২২ দিন পর রবিবার (২৯ আগস্ট) অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তারকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করলো শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

  • 235
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে