দ্রুত মাইগ্রেশনের দাবিতে রাস্তায় শাহ মখদুম মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ৮, ২০২০; সময়: ১:৩৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষার্থীদের অন্য কলেজে স্থানান্তরে স্বাস্থ্য মন্ত্রাণালয়ের সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণার দায়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি জানিয়েছেন তারা। রোববার বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে শিক্ষার্থীরা এই মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধনে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভবকরা অংশ নেন।

শিক্ষার্থীরা জানায়, সরকার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয় শাহ্ মখদুম মেডিকেল কলেজ ২২৫ ছাত্র-ছাত্রীদের রাজশাহী মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধীনে অন্যান্য বেসরকারি মেডিকেল কলেজ স্থানান্তর করার নির্দেশ দিয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের এই সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়ন করে ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা জীবন এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। কোনভাবেই এই সিদ্ধান্ত স্থগিত করা বাতিল করার যাবে না। এতে আমাদের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়বে বলে দাবি করেন শিক্ষার্থীরা।

তারা বলেন, মাইগ্রেশন প্রক্রিয়াকে বিলম্বিত করার জন্য কলেজ কর্তপক্ষ কিছু দালাল সহযোগী নিয়ে তাদের বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে। তাদের মাইগ্রেশন কার্যক্রম যেন অতি দ্রুত সম্পন্ন করে মানহীন মেডিকেল কলেজ আর ভবিষ্যতে চলতে না পারে। বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও প্রশাসনের কাছে শিক্ষার্থীরা কঠোর শাস্তির দাবি জানান।

শিক্ষার্থীদের পক্ষে শাকিলা দিল আফরোজ (মিষ্টি) জানান, আমাদের এইচএসসি শেষে অভিভবকরা অনেক কষ্ট করে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়ে এই মেডিকেল কলেজে ভর্তি করেছেন। প্রতি বছরে কলেজ কর্তপক্ষ লাখ লাখ টাকা নিয়েছে। এই টাকা দিতে অভিভবকরা কেউ জমি বিক্রি করেছেন, কেউ সারা জীবনের জমানো টানা দিয়ে এখানে ভর্তি করেছেন। এখন কলেজ কর্তপক্ষ আমাদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে!

রিয়াজুল হাসান নামের আরেক শিক্ষার্থী জানান, আমরা ডাক্তারি পড়ি মানুষের সেবা করার জন্য। কিন্তু এই প্রতিষ্ঠানটি যে শিক্ষা আমাদের দিচ্ছে তা মানুষ মারার জন্য। কলেজে ভর্তির পরে সবাই বুঝেছে এই মেডিকেল কলেজ চিকিৎসক তৈরি হবে না। তারা মানুষের সেবা করার শিক্ষা দিচ্ছে না! টাকার শিক্ষা দিচ্ছে।

আরো কয়েক শিক্ষার্থী জানান, ‘ প্রথম দুই ব্যাচ অল্প টাকায় ভর্তি নিয়েছে। তারপর থেকে পুরো টাকা নেয় ভর্তির জন্য। তারা জানান, এমন অবস্থার মধ্যে লেখাপড়া করতে চান না তারা। তাদের অভিযোগ ভর্থির পর থেকে এতোগুলো বছর পার হলেও সমস্যা সমাধান করেনি কর্তপক্ষ।

শিক্ষার্থীরা আরও জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া বন্ধের নির্দেশনার পরে শাহ মখদুম মেডিক্যাল কলেজ কর্তপক্ষ নড়েচড়ে বসেন। তারা গভীর রাতে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে গিয়ে স্বাক্ষর নেয়। কেন স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে তা জানেন না অভিভাবকরা। শিক্ষাথীদের অভিভাবকদের বিভিন্ন কথা বুঝিয়ে স্বক্ষর নেয়ার অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য দেন রিয়াজুল হাসান, নিশাত তাসনিম, গোলাম ফারুক, অভিভাবকদের পক্ষে বক্তব্য দেন, আব্দুল মোয়াজ্জেম, আব্দুর রউফ,মামুনুর রশিদ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ২ নভেম্বর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন উপ-সচিব স্বাক্ষরিত দু’টি চিঠি বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) কলেজে এসে পৌচ্ছে। একটি চিঠিতে ছাত্রভর্তি বন্ধ এবং অপরটিতে কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের অধীনন্থ অন্য বেসরকারি কলেজে মাইগ্রেশনের ব্যবস্থ্য করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ২০১৪ সাল থেকে কলেজটিতে শিক্ষার্থী ভর্তি শুরু হয়। বর্তমানে সাতটি ব্যাচে ২২৫ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। এর আগে ২০১৯ সালের মার্চে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে একটি তদন্ত হয়।

  • 53
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • মন্ত্রিসভায় করোনার ছোবল
  • গোদাগাড়ীতে কোটি টাকার হেরোইন উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৩
  • দুর্গাপুর পৌর সৈনিক লীগ সভাপতি বহিষ্কার
  • ৮৬ চিকিৎসককে পদোন্নতি
  • সংসার করার শর্তে ৪৭ স্বামীকে খালাস
  • রায়হান হত্যায় আরও ৩ পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত
  • দেশে করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু
  • রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থগিত নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশ
  • রাজশাহী টিটিসির ১৩ শিক্ষক-কর্মকর্তাকে বাসা ছাড়ার নির্দেশ
  • রাজশাহীতে বিয়ের কথা বলে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ
  • এসএসসির ৭৫ ও জেএসসির ২৫ ভাগ নিয়ে এইচএসসির ফল
  • অতিরিক্ত ফি নেওয়ার ব্যাপারে হুঁশিয়ারি শিক্ষামন্ত্রীর
  • পেছাচ্ছে ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা
  • স্কুলের প্রতি শ্রেণিতেই লটারির মাধ্যমে ভর্তি : শিক্ষামন্ত্রী
  • করোনায় রাজশাহীতে আরও একজনের মৃত্যু
  • উপরে