কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের অবস্থা স্থিতিশীল

প্রকাশিত: আগস্ট ২৫, ২০২১; সময়: ১১:১৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ছেলে ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ইমতিয়াজ হাসান।

তিনি বলেন, বিএসএমএমইউর ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ আরাফাত প্রধান করে একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। এই মেডিক্যাল বোর্ড অধীনেই তার চিকিৎসা চলছে। তারা বাবাকে পর্যবেক্ষণ করছেন। তার শারীরিক অবস্থার কোনো পরিবর্তন নেই। আগের মতোই রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, চিকিৎসকরা অনেকগুলো পরীক্ষা দিয়েছেন। হাসপাতাল পরিবর্তন করায় টেস্টগুলো আবার করতে হচ্ছে। বাবার বার্ধক্যজনিত সমস্যা ছাড়াও আগে থেকেই তার হার্টে সমস্যা, যে কারণে হর্টের বিষয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা বেশি করা হচ্ছে। তার শরীরে অক্সিজেনের তেমন অভাব না থাকলেও নিউমোনিয়ার কারণে আলাদা করে অক্সিজেন দেয়া হচ্ছে।

ইমতিয়াজ হাসান বলেন, ‘ঢাকাতে আসার পর এ পর্যন্ত পাঁচবার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ফলাফল পাঁচবারই নেভেটিভ এসেছে। উনাকে অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হয়েছে। তবে বাবা আমাদের সঙ্গে ভালোভাবে কথা বলতে পারছেন।’

উন্নত চিকিৎসার জন্য গত শনিবার রাজশাহী থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হয় হাসান আজিজুল হককে। ভর্তি করা হয় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে। পরে রাতে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাসান আজিজুল হকের চিকিৎসায় রোববার একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করে বিএসএমএমইউ। এর আগে সকালে তিনি জানান, হার্ট অ্যাটাক হয়ে হাসান আজিজুল হক বাসায় চিকিৎসধীন ছিলেন। অবস্থা অবনতি হওয়া ঢাকা আনা হয়।

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ১৯৩৯ সালের ২ ফেব্রুয়ারি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার যবগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। জীবনের অধিকাংশ সময় তিনি রাজশাহীতে কাটিয়েছেন। ১৯৭৩ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি ২০০৪ সাল পর্যন্ত একনাগাড়ে ৩১ বছর অধ্যাপনা করেন। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ব পাশে নগরের চৌদ্দপাড়া আবাসিক এলাকা ‘বিহাস’-নামে নিজ বাসায় থাকছেন।

  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে