পরপর দুবার ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল দুই বন্ধুর, মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে আরেকজন

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২২; সময়: ৪:০৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কিশোর নিহত হয়েছে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত আরেক কিশোরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার রাতে উপজেলার রাজামারিয়াকান্দি এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নিহত দুই কিশোর হলো সরাইল উপজেলার শাহাজাদপুর ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামের কামাল মিয়ার ছেলে সালমান মিয়া (১৭) ও রমিজ উদ্দিনের ছেলে শরিফ উদ্দিন (১৭)। আর আহত আনাছুর রহমান (১৬) একই এলাকার সাজিদুর রহমানের ছেলে। তাঁরা তিনজনই বন্ধু ছিল। তাঁরা দেওড়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিল।

পুলিশ ও নিহত কিশোরদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল সোমবার রাতে তিন বন্ধু হবিগঞ্জের মাধবপুর থেকে একটি মোটরসাইকেলে করে বাড়িতে ফিরছিল। মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিল শরিফ উদ্দন। রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার রাজামারিয়াকান্দি এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা পণ্যবাহী দুটি ট্রাক মোটরসাইকেলটিকে পরপর দুবার চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত হয়।

গুরুতর আহত অবস্থায় আনাছুর রহমানকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। দুর্ঘটনার পরপর মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

গুরুতর আহত আনাছুর রহমানের চাচা আরিফুর রহমান (৫১) বলেন, তারা তিনজন ছিল সহপাঠী এবং শৈশবের বন্ধু। তিন জনের চলাফেরা ছিল একইসঙ্গে। এর মধ্যে দুইজন চলেও গেল একসঙ্গে।

ময়নাতদন্ত ছাড়াই আজ মঙ্গলবার বিকেল তিনটার দিকে দেওড়া খাদিমবাড়ি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে একসঙ্গে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দুজনের লাশ দাফন করা হয়েছে।

সরাইল খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুখেন্দ্র বসু বলেন, তিন কিশোরকে চাপা দেওয়া ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। চালক পালিয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মহাসড়ক আইনে মামলা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে