স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব, প্রতিবাদ করায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২২; সময়: ১০:৩৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : লক্ষ্মীপুরে হুমায়ুন নামে এক ব্যক্তি তার প্রতিবেশী সোহেলের স্ত্রী সেলিনা আক্তারকে কুপ্রস্তাব দেন। প্রতিবেশী সোহেল এর প্রতিবাদ করলে উভয়পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এতে দু’পক্ষের নারী-পুরুষসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতরা সবাই জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরভূতা গ্রামে এ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) জসিম উদ্দীন বিষয়টি জানিয়েছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি জানান, চরভূতা গ্রামের বাসিন্দা সোহেলের স্ত্রী সেলিনা বেগমকে কুপ্রস্তাব দেয় তার পাশের বাড়ির শাহজানের ছেলে হুমায়ুন। এনিয়ে রোববার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে হুমায়ুনকে মারধর করে সোহেল ও তার লোকজন।

হামলার শিকার হয়ে ওই দিন হুমায়ুন কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ক্লিনিকে চিকিৎসা নেন। সোমবার দুপুরে হুমায়ুন হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে তার বড় ভাই মামুনসহ ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে সোহেলের চাচাতো ভাই মোবারকের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে মোবারকের ছোট ভাই জাবেদ, মা মোবাশ্বেরা বেগম, সোহেল ও তার ছোট ভাই সায়েদকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। বর্তমানে অভিযুক্ত হুমায়ুন ও মামুন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

সদর হাসপাতালের চিকিৎসক আল-আমিন জানান, আহতদের শরীরের বিভিন্ন জায়গাতে ধারালো অস্ত্রের চিহ্ন রয়েছে। এদের মধ্যে চার জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ও একজনের বাম হাত ভেঙে গেছে।

ওসি জসিম উদ্দীন আরও জানান, খবর হাসপাতাল ও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে