অপরিপক্ব আমে বিষ, বাজারে পাঠানোর আগেই ধরা

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২২; সময়: ৯:৫৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সাতক্ষীরা সদরের ফিংড়ি ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া এলাকায় ৫২৫ কেজি অপরিপক্ব আম পেড়ে কীটনাশক স্প্রে করার সময় আম ব্যবসায়ীকে আটক করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) বিকেল ৩টার দিকে শিমুলবাড়িয়া গ্রামের একটি আম-বাগান থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সময় জব্দ করা হয় ৫২৫ কেজি আম।

আম ব্যবসায়ী ইদ্রিস আলী (৪৫) আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা গ্রামের রমজান আলীর ছেলে।

সাতক্ষীরা জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান জানান, সকাল থেকেই গাছের অপরিপক্ব গোবিন্দভোগ আম ভাঙছিলেন আম ব্যবসায়ী ইদ্রিস আলী। আম ভাঙার পর গাছতলায় বসে কীটনাশক স্প্রে করছিলেন। এই বিষ স্প্রে করলে আম দ্রুত পেকে যায়। পরে পরিপক্ব পাকা আম বলে বাজারজাত করে ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণা করেন তারা। গোপনে খবর পেয়ে তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে ৫২৫ কেজি আম।

তিনি আরও জানান, এই আম আগামী ১০ মে বাজারে আসার কথা। কিন্তু বেশি মুনাফার আশায় ইথিওফিন নামক কীটনাশক প্রয়োগ করে আম পাকিয়ে বাজারজাত করার চেষ্টা করা হচ্ছিল।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাতক্ষীরা সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমনা আইরিন বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আম ব্যবসায়ীকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে সতর্ক করা হয়েছে। অপরিপক্ব আমগুলো নষ্ট করার জন্য সাতক্ষীরা পৌরসভার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

অভিযানকালে সাতক্ষীরা জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নাজমুল হাসান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমনা আইরিন, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম ও সদর থানার এএসআই গাজী সাজ্জাদ উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে