আসামির স্ত্রীকে মারধর-টাকা লুটের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২২; সময়: ৪:২৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আসামিকে না পেয়ে স্ত্রীকে মারধর, তল্লাশির নামে টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহাবুব মোরশেদকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে মাহাবুবের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে। আর এ কারণেই রোববার (১৭ এপ্রিল) রাতে তাকে জেলা পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়।

এসআই মাহাবুবের প্রত্যাহারের বিষয়টি সোমবার দুপুরে ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ।

তিনি বলেন, আসামি ধরতে গিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে এসআই মাহাবুব অপেশাদার আচরণ করেছেন এমন একটি অভিযোগ পুলিশ সুপার বরাবর দেওয়া হয়েছে। এরপরই তাকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। অভিযোগের পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চলছে।

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় খালেদা আক্তার নামের এক গৃহিণী পুলিশ সুপার বরাবর এসআই মাহাবুব মোর্শেদের বিরুদ্ধে মারধর ও টাকা লুটের অভিযোগ দেন।

তিনি সীতাকুণ্ড উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ভাটেরখিল এলাকার নুরুল ইসলামের স্ত্রী। নুরুল ইসলাম গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি।

লিখিত অভিযোগ থেকে জানা গেছে, খালেদা আক্তারের স্বামী নুরুল ইসলাম জমি সংক্রান্ত পারিবারিক বিরোধের একটি মামলার আসামি। শনিবার দুপুর আড়াইটায় এসআই মাহাবুব মোরশেদ দুজন পুলিশ কনস্টেবল নিয়ে আসামিকে গ্রেপ্তার করতে যান।

আসামিকে না পেয়ে এসআই মাহাবুব আলমারির চাবি দিতে বলেন। খালেদা আক্তার চাবি দিতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর মারেন।

এরপর তার কাছ থেকে আলমারির চাবি নিয়ে ১ লাখ ৪২ হাজার টাকা, সোনার কানের দুল, দুটি মোবাইল, সন্তানের শিক্ষা ও জন্ম সনদ নিয়ে যান মাহাবুব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে