গুরুদাসপুরে আগুনে ৯টি পরিবারের ১২টি ঘর পুড়ে ছাই, নিহত ১

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২২; সময়: ৯:১৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর : নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের পুরুলিয়া গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৯টি পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ সময় আগুনে পুড়ে গুলজান বেওয়া (১১০) নামের এক বৃদ্ধার মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

শুক্রবার (১৫এপ্রিল) বিকেল ৩টার সময় গুরুদাসপুর উপজেলার আগ পুরুলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ৯টি পরিবারের প্রায় ১২টি ঘর পুড়ে যায়। সর্বস্বহারা পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। ঘরে ইফতার করার মতো কিছু নেই।

স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেল আনুমানিক ৩টার দিকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত শুরু হয়। মুহুর্তেই ছড়িয়ে পরে আগুন প্রতিবেশির ঘরগুলোতে। গুরুদাসপুর,বনপাড়া ও নাটোরের ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ৩টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। মাটি বাহী ট্রাক্টরের সাথে বিদুতের তার বেধে ছিড়ে গেলে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে এলাকাবাসী জানান।

আগুনে সর্বস্বহারা সরওয়ার ও সলিম সরদার জানান, বিকাল ৩টার দিকে হঠাৎ বিদ্যুতের তার ছিড়ে আগুন লাগলে চারদিকে ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়। ফায়ার সার্ভিস আসতে আসতে আমাদের সব শেষ হয়ে যায়। ছেলে মেয়েদের বই, সার্টিফিকেট টাকা পয়সা আসবাব সবই পুড়ে শেষ হয়ে গেছে। তারা আরো জানান ৯ পরিবারের নগদ টাকাসহ প্রায় ৫০লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

একই এলাকার রফিকুল ইসলাম বলেন, আগুন লাগছে খবর পেয়ে এসে দেখি চোখের সামনে পুড়ছে ঘরবাড়ি ছাড়খার হয়ে গেছে। কোনো কিছুই নিতে পারিনি। চোখের সামনে সবই পুড়ে শেষ হয়ে শেষ। অতপর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসার পর মাটির ঘরে ১১০ বছর বয়সি মৃতু আব্দুল সরদারের স্ত্রী গুলজান বেওয়া ভস্মিভুত দেহ পওে থাকতে দেখে সবাই মিলে তাকে মৃতু অবস্থায় উদ্ধার করেন।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের গুরুদাসপুর ইউনিটের উপসহকারী পরিচালক মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ৯টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এর মধ্যে ১২টি ঘরের সর্বস্ব পুড়ে যায়। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান এখনো নিরুপণ করা সম্ভব হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে