পুলিশ হেফাজতে যুবকের মৃত্যু, মহাসড়ক অবরোধ

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৫, ২০২২; সময়: ১০:৫১ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : লালমনিরহাটে জুয়াড়ি সন্দেহে এক যুবককে আটকের পর পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে পুলিশি নির্যাতনে তার মুত্যৃ হয়েছে বলে অভিযোগ স্বজনদের।

বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম রবিউল ইসলাম খান। ২৫ বছর বয়সী রবিউল সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের কাজির চওড়া এলাকার দুলাল খানের ছেলে।

পুলিশ জানায়, লালমনিরহাট সদর উপজেলার হারাটি ইউনিয়নের হিরামানিক এলাকায় বৈশাখী মেলা চলছিল। ওই মেলা সংলগ্ন এলাকায় চলছিল জুয়া।

খবর পেয়ে রাত আনুমানিক ১১টার দিকে লালমনিরহাট সদর থানার পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে ধাওয়া করে রবিউল ও শ্রী পোল্লাদ মেকারকে আটক করে।

এর মধ্যে রবিউল অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নেয় পুলিশ। রাত সাড়ে ১১টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রবিউল মারা যান। তার মৃত্যুর খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এদিকে, রবিউলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে মধ্যরাতেই মহেন্দ্রনগর বাজারে লালমনিরহাট-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে অভিযুক্ত সদর থানার এসআই হালিমের শাস্তি দাবি করেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পুলিশ ভ্যানে হামলা ও ভাঙচুর করেন অবরোধকারীরা।

এ সময় সড়কের দু-পাশে শতশত পণ্যবাহী ট্রাক, বাসসহ বিভিন্ন যানবাহন আটকে যায়। ভোর চারটার দিকে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে উত্তেজিত জনতাকে আশ্বস্ত করলে তারা চলে যান। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

নিহতের পরিবার ও তার স্বজনরা দাবি করেন, রবিউলকে পিটিয়ে ও নির্যাতনে হত্যা করেছে পুলিশ। হত্যার বিচার দাবি করেন তারা। এ ঘটনায় এলাকায় চলছে উত্তেজনা।

লালমনিরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, জুয়া খেলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে আটক করে। থানায় আসার পথে অসুস্থ অনুভব করলে রবিউলকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রংপুর মেডিকেলে নেয়ার প্রস্তুতিকালে তার মৃত্যু হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে