গুরুদাসপুরে শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা নিতে উপচে পড়া ভিড়

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২২; সময়: ৩:৫১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর : নাটোরের গুরুদাসপুরে ১২ থেকে ১৮ বছরের মাদ্রাসা ও স্কুল শিক্ষার্থীদের করোনা টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভিড়ে টিকাদানে হিমশিমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

এসময় শিক্ষার্থীদের মধ্যে মাস্ক পরিধান ও সামাজিক দূরত্ব দেখা যায়নী। বরং সবাই লাইনে গা ঘেষেঁ দাঁড়ানোর কারনে করোনা সংক্রমনে আশংকা।

বুধবার (১৯ জানুয়ারী) গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, ছেলে ও মেয়ের দুইটি লাইনে উপচে পড়া ভিড়। প্রায়ই শিক্ষার্থীদের মুখে মাস্ক ও সামাজিক দূরত্বে নেই। সবাই গায়ের সাথে গা ঘেঁষে লাইনে দাঁড়িয়ে আছে।

টিকা নিতে আসা শিক্ষার্থীদের ইজিবাইক ও অটোভ্যান রাস্তায় রাখা এবং শিক্ষার্থীদের লাইন রাস্তায় যাওয়ার কারনে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে রাস্তায় সাধারন মানুষের চলাচলে নানা অসুবিধা হচ্ছে।

গুরুদাসপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মাদ্রাসা ও স্কুল পর্যায়ের মোট ১৭ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। সরকারি নিদের্শনা আসার পর গত ৮জানুয়ারী থেকে চলছে এই টিকাদান কার্যক্রম।

বুধবার পযর্ন্ত ১৩ হাজার ৪৬১ জন শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ছেলে শিক্ষার্থী ৬ হাজার ৯৯৮ জন ও মেয়ে শিক্ষার্থী ৬ হাজার ৪৬৩ জন।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ওহিদুজ্জামান জানান, ১৪ হাজার ৪৬১ জন শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকার মজুত শেষ হওয়ায় বাকী শিক্ষার্থীদের অল্প দুই এক দিনের মধ্যেই টিকা দেওয়া হবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোজাহিদুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, সরকারি নির্দেশনা আসা মাত্রই শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। প্রথম দিকে কোন সমস্যা ছিল না। বর্তমানে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা একসাথে আসায় এই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীদের মাস্ক পরিধান ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার চেষ্ঠা করা হচ্ছে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে