চলমান নির্বাচন নিয়ে অসন্তুষ্টের প্রকাশটাই আমার বেশী : নির্বাচন কমিশনার মাহবুব

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১১, ২০২২; সময়: ৫:৫৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, চলমান নির্বাচন নিয়ে আমার সন্তুষ্ট হবার প্রকাশ খুব কম। অসন্তুষ্ট হওয়ার প্রকাশটাই বিভিন্ন সময়ে বেশী। আমি অসন্তুষ্ট কেন যারা নির্বাচন সংশ্লিষ্ট তারা যদি অনুধাবন করতে পারেন তাহলে আমার অসন্তুষ্ট হওয়াটার একটা যোগ্যতা থাকে।

তিনি বলেন, আগামী ১৬ জানুয়ারি নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও আইনানুগ হয় সেটা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। নারায়নগঞ্জ সিটি নির্বাচন শেষ নির্বাচন। ওই নির্বাচন আমি নিজে পরিদর্শন করব’। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলা শহীদ স্মৃতি সম্মেলন কক্ষে উপজেলায় স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি স্থানীয় সরকার নির্বাচনে যে সব এলাকায় অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে সে সব এলাকায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ‘আগামী দিনে যারা নতুন নির্বাচন কমিশনার হিসাবে আসবেন তারা পরবর্তী নির্বাচন সুষ্ঠ করতে জেলা উপজেলা পর্যায়ে নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের আরো বেশী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নিবেন।

সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার আগে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসের আয়োজনে অনুষ্ঠিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রফেসর আজাদ রহমান, সিরাজগঞ্জ জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, শাহজাদপুর পৌর মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী। অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ ফরিদুল ইসলাম, সিরাজগঞ্জ অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ মোবারক হোসেন, শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদ মাহামুদ খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন। অনুষ্ঠান শেষে মাহবুব তালুকদার রবীন্দ্র কাছারি বাড়ি ও জাদুঘর এবং সাহিত্যিক বরকতুল্লাহ ডিগ্রি কলেজ পরিদর্শন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে