২ গারো তরুণী ধর্ষণের মামলায় মূল হোতাসহ ৬ জন গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২২; সময়: ২:১৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পথে দুই গারো তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগের মামলায় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আজ শনিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি সফিকুল ইসলাম। এ ঘটনায় মূল আসামি রিয়াদকেও গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে র‍্যাব। র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালকের পক্ষ থেকে মূল আসামি রিয়াদের গ্রেপ্তারের তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি সফিকুল ইসলাম জানান, গতকাল শুক্রবার রাতে ময়মনসিংহ ও গাজীপুর জেলা থেকে অভিযান চালিয়ে ডিবি এই পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন—হালুয়াঘাট উপজেলার কাতলমারি গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে শরীফ মিয়া (২০), কাটাবাড়ী গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে মিজানুর রহমান (২২), একই গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে আব্দুল হামিদ (১৯), কচুয়াকুড়া গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে মিয়া হোসেন (২০) একই গ্রামের মফিজুল মিয়ার ছেলে রুকন মিয়া (২১)। তাঁদের মধ্যে আব্দুল হামিদ মামলার আসামি না হলেও ঘটনায় জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মো. আহমার উজ্জামান বলেন, গত রাতে ময়সনসিংহসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে দুই গারো তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অচিরেই বাকিদের গ্রেপ্তার করা হবে।
গত ২৭ ডিসেম্বর মধ্যরাতে বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে কাটাবাড়ী গ্রামে দুই গারো তরুণী ধর্ষণের শিকার হন। পরে ৩০ ডিসেম্বর হালুয়াঘাট থানায় ১০ জনকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন এক তরুণীর বাবা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে