বদলগাছীতে মুক্তিযোদ্ধা চাচার হাতে ভাতিজা খুন

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩, ২০২১; সময়: ৯:১২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বদলগাছী : নওগাঁর বদলগাছীতে ভাঙ্গা রাস্তায় মাটি দিয়ে সংস্কার করায় চাচার হাতে ভাতিজা খুন হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। নিহত ব্যক্তির নাম জবাইদুল ইসলাম(৫০)। সে মথুরাপুর ইউপির দুর্গাপুর গ্রামের মৃত অম্বর আলীর ছেলে। অভিযুক্তরা হলেন, একই গ্রামের নিহতের চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক(৭৫) ও তার ছেলে নবি(৫০)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পাঁকা সড়ক থেকে নিহত জবাইদুল ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেকের বাড়িতে যাওয়ার জন্য আনুমানিক ৫০ ফিট দৈর্ঘ্যের ও পাঁচ ফিট চওড়ার একটি মাটির রাস্তা আছে। সেই রাস্তার সামনের দিকে কিছুটা গর্ত থাকায় রাতে যাতায়াতের সময় প্রায়ই আছড়ে পড়তে হয়। সেই রাস্তাটি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেকের মালিকানাধীন জমি। শুক্রবার দুপুর আনুমানিক ১২টার দিকে জবাইদুল ইসলাম মাটির রাস্তার ভাঙ্গা স্থানটি ভড়াট করে দেয়।

খবর পেয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক ও তার মাদকাসক্ত ছেলে নবি এসে জবাইদুল ইসলামের উপর হামলা করে। এসময় জবাইদুল ইসলাম মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তার চাচা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক গলা টিপে ধরে। অনেকক্ষণ গলা টিপে ধরার ফলে জবাইদুল ইসলামের মুখ দিয়ে রক্ত উঠতে শুরু করলে তাঁকে ছেড়ে দেয়। তাৎক্ষণিক তাকে জয়পুহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে আনুমানিক বিকেল চারটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এলাকাবাসী আরো জানায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেকের বড় ছেলে রেজাউল করিম রেল মন্ত্রনালয়ের উপসচিব পদে কর্মরত আছেন। তার উস্কানিতেই বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক ও তার মাদকাসক্ত ছেলে নবি বিভিন্ন সময় জবাইদুল ইসলামকে হুমকি দিয়ে আসছিল। আর আজ তাকে হত্যার মধ্যে দিয়ে এর পরিসমাপ্তি ঘটাল। এলাকাবাসীরা আরো বলেন তার ছেলের ক্ষমতা দেখিয়ে আব্দুল খালেক ও তার মাদকাসক্ত ছেলে এই এলাকায় যা ইচ্ছা তাই করে বেড়ান। তাঁদের মতো খারাপ লোক এই এলাকায় আর একটিও পাওয়া যাবেনা। এ ব্যাপারে জয়পুহাট সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে