প্রণোদনার সার-বীজ পেয়ে ২১৭০ কৃষকের মুখে হাসি

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২১; সময়: ৮:২৯ pm |

আহসান হাবীব মির্জা, আদমদীঘি : বগুড়ার আদমদীঘিতে চলতি রবি মৌসুমে গম, ভূট্টা, সরিষা, সূর্যমুখী, শীতকালীন পেঁয়াজ, মুগ ও মসুর ডাল উৎপাদনে প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় ২১৭০ জন কৃষক-কৃষাণীদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে আদমদীঘি উপজেলা কৃষি অফিস চত্বরে বিনামূল্যের এসব সার-বীজ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সালমা বেগম চাঁপা।

আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) শ্রাবণী রায়ের সভাপতিত্বে সার ও বীজ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু রেজা খান ও ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জালাল উদ্দিন শেখ, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার জনাব সুজয় পাল, উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার ডাক্তার আমিরুল ইসলাম ও উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার তৌহিদুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার দিপ্তী রানী রায়, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আদুরী তমাসহ ১৯ ব্লকের উপসহকারিসহ কৃষি কর্মকর্তাগণ।

প্রণোদনা নিতে আসা উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের কৃষক কাশেম বলেন, চলতি রবি মৌসুমের শুরুতেই প্রণোদনা পাওয়ায় অত্যন্ত উপকার হবে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস থেকে সঠিক সময়ে সঠিক পরামর্শ ও প্রণোদনা পাওয়ায় আমরা খুশি।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মিঠু চন্দ্র অধিকারী জানান, এবছর উপজেলার মোট ২১৭০ জন কৃষকের মাঝে প্রণোদনার সার ও বীজ বিতরণ করা হয়। এরমধ্যে ৩০০ জন গম চাষীর প্রত্যেকে ২০ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার। ৫০০ জন ভূট্টা চাষীর প্রত্যেকে ২ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার। ১২০০ জন সরিষা চাষির প্রত্যেকে ১ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার। ৫০ জন সূর্যমুখী চাষির প্রত্যেকে ১ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার। ৪০ জন শীতকালীন পেঁয়াজ চাষির প্রত্যেকে ১ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার। ৫০ জন মুগ চাষির প্রত্যেকে ৫ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার এবং ৪০ জন মসুর চাষির প্রত্যেকে ৫ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার প্রদান করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে