বদলগাছীতে জানালার গ্রিল কেটে নগদ টাকা-স্বর্ণালঙ্কার চুরি

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৫, ২০২১; সময়: ৪:৩১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক,নওগাঁ: নওগাঁর বদলগাছীতে জানালার গ্রিল কেটে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার চুরির ঘটনা ঘটেছে। রবিবার দিবাগত রাত ১ টা ৫০ মিনিটে বদলগাছী উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের খোজাগাড়ী নামক এলাকার তরিকুল ইসলামের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

তরিকুল ইসলামের দাবী, তার নগদ ২ লাখ ৪৬ হাজার ৪শত টাকা ,সাড়ে ৫ ভরি স্বর্নালঙ্কার ও একটি এ্যান্ডুয়েট মোবাইল সেট ও কাপড় চোপড় সহ যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৭ লাখ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে।

তরিকুল ইসলামের স্ত্রী বলেন, আমার স্বামী একজন রড , সিমেন্ট ও ফিটিংসের ব্যবসায়ী । তিনি তার স্বামী ও দুই মেয়েকে নিয়ে তার বসতবাড়ীতে বসবাস করেন । প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতে তিনি তার স্বামী সন্তান নিয়ে খাওয়া-দাওয়া শেষে রাত আনুমানিক ১২ টা ১০ মিনিটে তার দুই মেয়ে দক্ষিন দুয়ারী ঘরে শুয়ে ঘুমিয়ে পড়ে।

আমি ও আমার স্বামী টিভির ঘরে ঘুমিয়ে পড়ি। রাত্রী আনুমানিক রাত ১ টা ৫০ মিনিটে অজ্ঞাতনামা চোর আমার বাড়ির পূর্ব দিকের পশ্চিম দুয়ারীর স্টোর রুমের জানালা গ্রিল কৌশলে খুলিয়া ভিতরে প্রবেশ করে আমার পূর্ব ভিটার পশ্চিম দুয়ারী ফাঁকা শয়ন ঘরে প্রবেশ করিয়া ঘরে থাকা সোকেচ ও আলমারির তালা ভেঙ্গে নগদ টাকা, স্বর্নালংকার ও মালামাল চুরি করে।

পরে আমার মেয়ের শয়ন ঘরে প্রবেশ করে এবং তার চোখে টর্চ লাইটের আলো মারে তখন আমার বড় মেয়ে তার ঘরে দুই জন লোককে দেখতে পেয়ে তাদেরকে বলেন আমার আব্বু কোথায় বলে চিৎকার দিতে লাগলে তাকে ভয় দেখিয়ে তার গলায় থাকা স্বর্নের চেইন টান দিয়ে নিয়ে ঘরের দরজা লাগিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় ।

তারপর আমার মেয়ে চিল্লাচিল্লি করতে থাকলে আমার ¯ স্বামী  ও আমি ঘুম থেকে জেগে উঠে দেখি আমার মেয়ের ঘরের দরজা বাহির থেকে আটকানো সাথে সাথে দরজা খুলে দেই। এবং অন্য ঘরে গিয়ে দেখি, পূর্ব-উত্তরকোনের ঘরের জানালার গ্রিল কাটা ও আরেকটি শয়ন ঘরের আসবাবপত্র এলোমেলো সেখানে গিয়ে দেখতে পায় আলমারির সব কাপড় চোপর এলোমেলো অবস্থায় পড়ে আছে। দেখি আমার স্বর্ণের হাতের বালা যার ওজন দেড় ভরি, গলার হার ওজন দেড় ভরি, স্বামীর আংটি যার ওজন ১ ভরি চার আনা ও আরেকটি আংটি যার ওজন চার আনা, আমার মেয়ের স্বর্নের চেন যার ওজন আট আনা , একটি মোবাইল সেট ও নগদ ২ লাখ ৪৬ হাজার ৪ শত টাকাসহ বিভিন্ন কাপড় চোপড় নেই। তখন আমাদের ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ঘটনাটি দেখে। সঙ্গে সঙ্গে আমার স্বামী বদলগাছী থানায় বিষয়টি রাতেই অবগত করলে পাহাড়পুর ফাঁড়ীর একটি টিম ও বদলগাছী থানার এসআই আবু তাহের তার একটি টিম নিয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিদর্শন করেন।

পরে সকাল সাড়ে ১০ টায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহাদেবপুর সার্কেল এ.টি.এম. মাইনুল ইসলাম ও বদলগাছী থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন।

এ বিষয়ে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মালামাল উদ্ধারের তৎপরতা চলছে।

 

  • 18
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে