পরকীয়ায় যাত্রাবাড়ীতে স্ত্রী-সন্তান হত্যার আসামি গ্রেফতার

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৫, ২০২১; সময়: ২:২১ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে পরকীয়ার কারণে হাতুড়িপেটা ও বালিশচাপায় স্ত্রী ও সন্তান হত্যা মামলার আসামি অহিদুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবককে বেনাপোল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে হোটেল বেনাপোল ইন্টারন্যাশনাল থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অহিদুল ঢাকার উত্তর যাত্রাবাড়ী এলাকার আব্দুল রাজ্জাকের ছেলে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান জানান, অহিদুল ঢাকা থেকে এসে বেনাপোলের একটি আবাসিক হোটেলে অবস্থান করছে, এমন গোপন খবর পাওয়া যায়। এর ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে সেখান থেকে আটক করা হয়। মামলার বরাতে ওসি বলেন, পরকীয়ার কারণে স্ত্রী রুমি আক্তারকে হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করার পর দেড় বছরের শিশু রিশাদকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় অহিদুল।

গ্রেফতারের পর অহিদুল ইসলাম অসুস্থবোধ করায় তাকে পুলিশের পাহারায় যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা যায়, গত ৩০ অগাস্ট রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর মীর হাজীরবাগের বাসা থেকে অহিদুলের দেড় বছরের ছেলে রিশাদ ও তার স্ত্রী ২৭ বছর বয়সি রোমা আক্তারের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে অহিদুল পলাতক ছিলেন। স্ত্রী-সন্তান হত্যার অভিযোগে যাত্রাবাড়ী থানায় ৩০ আগস্ট মামলা করা হয়।

লাশ উদ্ধারের পর ঢাকা মহানগর পুলিশের ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার শাহ ইফতেখার আহমেদ জানিয়েছিলেন, রোমা ও তার ছেলেকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তারা বাসা থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করেছেন, যেটি অহিদুলের হাতের লেখা বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

সেখানে বলা হয়েছে— ফ্রান্স প্রবাসী একজনের সঙ্গে তার স্ত্রীর পরকীয়া সম্পর্কের কারণে সে এই হত্যার ঘটনা ঘটিয়েছে।

পুলিশ জানায়, অহিদুলের বাবা যাত্রাবাড়ীর স্থানীয় একটি মসজিদের ইমাম। মা বিভিন্ন জায়গায় ‘টিউশনি’ করেন। অহিদ ‘ফ্রিল্যান্সিংয়ে’ কম্পিউটারের কাজ করতেন।

  • 87
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে