মান্দায় প্রেমপত্র দেওয়াকে কেন্দ্র করে গ্রাম পুলিশকে মারপিট

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৩, ২০২১; সময়: ৭:৩১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নওগাঁর মান্দায় প্রেমপত্র দেওয়াকে কেন্দ্র করে মারপিটের শিকার হয়েছেন স্বপন কুমার প্রামানিক (৪৮) নামে এক গ্রাম পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের বৈলশিং গ্রামের মোড়ে ইয়াছিন আলীর চায়ের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহত গ্রামপুলিশ স্বপন প্রামানিক বৈলশিং গ্রামের ধীরেন্দ্রনাথ প্রামানিকের ছেলে ও ভালাইন ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রামপুলিশ। তিনি মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামের মুসলিম এক নারীকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসছিল গ্রামপুলিশ স্বপন প্রামানিক। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে একবার নিষ্পত্তিও করে দেওয়া হয়েছে। এরপর বৃহস্পতিবার ওই নারীকে আবারো প্রেমপত্র দেন তিনি।

ভুক্তভোগী ওই নারী জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বাড়ি সংলগ্ন রাস্তায় ছেলেকে নিয়ে হাঁটাহাঁটি করছিলাম। এসময় গ্রামপুলিশ স্বপন এসে তাঁর হাত ধরে একটি প্রেমপত্র ধরিয়ে দিয়ে চলে যান। যাতে অনেক অকথ্য ভাষা লেখা ছিল।

তিনি আরও বলেন, সন্ধ্যায় স্বামী বাড়ি আসলে স্বপনের দেওয়া প্রেমপত্রটি তাঁর হাতে ধরিয়ে দেন। এতে স্বামী ক্ষিপ্ত হয়ে গ্রামের মোড়ে ইয়াছিনের চায়ের দোকানে গিয়ে স্বপনের সঙ্গে মারপিটে জড়িয়ে পড়েন।

অন্যদিকে গ্রামপুলিশ স্বপন প্রামানিক এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পরিকল্পিতভাবে ফাঁসাতে তাঁর বিরুদ্ধে প্রেমপত্র দেওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইব্রাহীম আলী বাবু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে গ্রামপুলিশ ওই নারীকে উত্যক্ত করছিল।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, বিষয়টি স্পর্শকাতর। এরই মধ্যে গ্রামপুলিশের লেখা একটি চিঠি উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে