গুরুদাসপুরে নৌকার মাঝি হত্যা কান্ডে পলাতক দুই আসামী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১, ২০২১; সময়: ৭:১৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর : নাটোরের গুরুদাসপুরে আরজু (২৭) নামের এক নৌকার মাঝিকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় পলাতক দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রাজশাহীর কাটাখালি থেকে অভিযুক্ত ফরহাদ হোসেন (১৮) ও রতন আলীকে (১৯) গ্রেফতার করা হয়েছে।

আজ বুধবার দুপুরে অভিযুক্তদের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দির জন্য নাটোরের আদালতে নেওয়া হয়েছে। এরআগে মামলার প্রধান অভিযুক্ত বাইজিদ বোস্তামীকে (১৮) হত্যাকান্ডের দ্বিতীয় দিন সোমবার গ্রেফতার করা হয়। তার দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ফরহাদ হোসেন ও রতন আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অভিযুক্ত বাইজিদ বোস্তামী গুরুদাসপুর উপজেলার বিলহরিবাড়ি গ্রামের নাসির বোস্তামীর ছেলে এবং একই গ্রামের আব্দুল কাদেরের ছেলে রতন আলী। অপর অভিযুক্ত ফরহাদ হোসেন সিংড়ার কৃষ্ণনগর গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে।
নিহত আরজু মাঝি সিংড়া উপজেলার চামারি ইউনিয়নের আনন্দনগরে গ্রামের কদম আলীর ছেলে। তিনি পেশায় নৌকার মাঝি ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকালে নিহত আরজু মাঝির নৌকাটি চলনবিল ভ্রমনের জন্য ভাড়া নেন অভিযুক্তরা। এরপর আর ফিরে আসেননি আরজু মাঝি। পরে ২৮ আগস্ট শনিবার গুরুদাসপুর উপজেলার বিলশা বিল থেকে পুলিশ ভাসমান অবস্থায় আরজু মাঝির রক্ত্যাক্ত লাশ উদ্ধার করে। এসময় তার নৌকাটিও জব্দ করা হয়। এঘটনায় ২৮ আগস্ট শনিবার নিহতের পিতা কদম আলী বাদি গুরুদাসপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

গুরুদাসপুর থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত মনোয়ারুজ্জামান জানান, রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে অভিযুক্ত বাইজিদকে গুরুদাসপুর উপজেলার বেড়গঙ্গারামপুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে অপর দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অভিযুক্ত বাইজিদকে গ্রেফতারের পর সোমবার প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে হত্যাকান্ডের বিষয়টি নিশ্চত করে পুলিশ। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় প্রেমে বাধা দেওয়ার প্রতিশোধ নিতে অভিযুক্তরা পরিকল্পনা অনুযায়ী আরজু মাঝিকে কুপিয়ে হত্যা করে।

  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে