সড়কের বেহাল দশায় দুর্ভোগে গ্রামের হাজার মানুষ

প্রকাশিত: আগস্ট ২৬, ২০২১; সময়: ৬:০৪ pm |

মো: মাসুদ রানা, কচুয়া : চাঁদপুরের কচুয়ার পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নের আলীয়ারা পূর্ব বাজার ব্রীজ সংলগ্ন হতে আলীয়ারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সড়ক মসজিদ পর্যন্ত ১ কি.মি. কাচা রাস্তাটি যেন এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।

এ ইউনিয়নের দুই গ্রামের ৩/৪ হাজার মানুষের জন্য অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দীর্ঘ এক যুগেরও বেশী সময় ধরে সড়কটি সংস্কারের জোরালো দাবি করে আসছেন ওই দুই গ্রামের ভুক্তভোগী মানুষ। কিন্তু সড়ক সংস্কার কাজের এলাবাসীর দাবি সংশ্লিষ্টদের কর্ণপাত করাতে না পারায় অবহেলায় পড়ে আছে আলীয়ারা মিনার বাড়ির এ সড়কটি।

বর্ষা এলেই কাচাঁ এই সড়কটি পরিণত হয় মরণ ফাঁদে। বর্ষায় বৃষ্টির পানি জমে সড়কগুলো হয়ে উঠে ভয়াবহ। প্রতিদিনই ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে এ সড়কে। দুই গ্রামের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা শিক্ষার্থী, চাকরিজীবি ও সাধারণ মানুষের চলাচলের প্রধান রাস্তা এটি। দীর্ঘদিন ধরে কাচাঁ এ সড়ক দিয়ে দুই গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে আসছে। ভুক্তভোগীরা নিয়মিত সড়ক সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসলেও বিষয়টি আমলে নিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ। ফলে খানাখন্দে ভরপুর সড়ক দিয়েই ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে এলাকার মানুষ।

আলীয়ারা গ্রামের বাসিন্দা নাছির উদ্দিন,জসীম উদ্দিন পাটওয়ারী,তাজুল ইসলাম হাজী,জামাল পাটওয়ারী ও মহরম আলী মাষ্টার জানান, বহুবছর আগে থেকেই সড়কের এ অবস্থা দেখে আসছি। নির্বাচন এলে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি মিললেও দেখা মেলে না এর বাস্তাবায়ন। তাই প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ কাচাঁ সড়কেরই বাজারে ও স্কুল-কলেজে যেতে হয় স্থানীয়দের। দ্রুত রাস্তাটি মেরামতের দাবি এলাকাবাসীর।

শিক্ষার্থী বোরহান আহমেদ রিজভী,সুমাইয়া আক্তার ও রায়হান প্রধান জানান, আমরা প্রতিনিয়ত এই সড়ক দিয়ে স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসায় যাতায়াত করে থাকি। একটু বৃষ্টি হলে এই কাঁচা রাস্তা দিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। অনেক সময় কাঁদা ছিটকে আমাদের শরীরে আসে। অতি দ্রুত রাস্তাটি পাকাকরণের জন্য সংশ্লিষ্টদের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

অটো চালক কামাল ও হাসান জানান, দীর্ঘদিন ধরে তারা ঝুঁকি নিয়ে যাত্রী পরিবহন করছেন। রাস্তার বেহাল দশার কারণে গাড়ী ঘনঘন মেরামত করতে হয়। প্রায়ই ঘটে ছোট বড় দুর্ঘটনা। তবুও সংসারের ভরন-পোষনের তাগিদে ঝুঁকি নিয়ে এ ভাঙ্গা সড়ক দিয়ে গাড়ী চালাছেন তারা।

ইউপি সদস্য মোবারক হোসেন জানান, বর্তমান সরকার দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে সড়কের ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। তাই সরকারের কাছে আমাদেরও দাবি এ সড়কটি দ্রুত সংষ্কার করা হোক।

ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ আজাদ জানান, এ সড়কটি কাচাঁ হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় মানুষের। রাস্তা সংস্কারের বিষয়ে স্থানীয় এমপি মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে। অচিরেই ওই রাস্তা সংস্কারের কাজ করা হবে।

উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. কামাল হোসেন জানান, আলীয়ারা ব্রীজ হতে স্কুল পর্যস্ত এ কাচাঁ রাস্তা পাকাকরণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। অনুমোদন হলে অচিরেই কাজ শুরু করা হবে।

  • 123
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে