বরিশালে আরও ১৪ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০২১; সময়: ১২:৩৩ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বরিশাল বিভাগে এক দিনে ৩ হাসপাতালে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ৯ এবং করোনায় ৫ জন করোনা রোগী মৃত্যুবরণ করেন। আরটি-পিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ৩৯ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এ সময়ে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৭৭৩ জন।

বুধবার (০৪ আগস্ট) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয় থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রমণ তথ্যে দেখা গেছে ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে বরিশাল জেলায় ৩৩৭ জন। এ পর্যন্ত জেলায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৯৯৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭ হাজার ৭৭৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছে ১৬৬ জন।

পটুয়াখালী জেলায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৯৭ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৮২২ জন। ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৮৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭২৭ জন।

ভোলা জেলায় নতুন ১৮২ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হলেন ৪ হাজার ৪১১ জন। ২৪ ঘণ্টায় দুইজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৪২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৫৭৪ জন।

পিরোজপুর জেলায় নতুন ৪৭ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৫৬৪ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারও মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৭৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৮৩০ জন।

বরগুনা জেলায় নতুন ৬৪ জন শনাক্ত নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১৩৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারও মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৬৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৯৫৬ জন।

ঝালকাঠি জেলায় নতুন ৪৬ জন শনাক্ত নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ২১০ জন। ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৬২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১১৭ জন।

মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৯ জন উপসর্গ নিয়ে এবং দুইজন করোনা রোগীসহ মোট ১১ জন শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মৃত্যুবরণ করেন। এছাড়া পটুয়াখালী হাসপাতালে একজন এবং বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে দুইজন করোনা রোগী মৃত্যুবরণ করেন।

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পরিচালকের তথ্য সংরক্ষক জাকারিয়া খান স্বপন জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের আইসোলেশনে ৪০ জন ভর্তি হন। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে ৩৪৯ জন চিকিৎসাধীন রোগী আছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগের ২৪ ঘণ্টায় (সোমবার) বিভাগে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছিল ১৮ জনের। আরটি-পিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ৪৩ দশমিক ১৫ শতাংশ। এ সময়ে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিল ৭৪০ জন।

পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় ২০২০ সালের ৯ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সেই থেকে বুধবার (০৪ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত বিভাগের ৬ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছেন ৩৬ হাজার ১৪০ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৯৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ৯৮০ জন।

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে