লকডাউনে সকল এনজিও অফিস বন্ধ থাকলেও সঞ্চয় ফেরত পেলেন ব্র্যাক গ্রাহকরা

প্রকাশিত: জুলাই ১৫, ২০২১; সময়: ৩:০২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) : কঠোর লকডাউনে সকল এনজিও অফিস বন্ধ থাকলেও সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পেলেন ব্র্যাক গ্রাহকরা। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার ৬ ইউনিয়নের ৪টি ব্রাঞ্চের গ্রাহক তাদের সঞ্চয় হতে দুই হাজার করে টাকা ঘরে বসেই বিকাশের মাধ্যমে ফেরত পেয়েছেন।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশে গত ১ জুলাই ২০২১ ইং তারিখ হতে কঠোর লকডাউন ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। এর কারণে বিভিন্ন শ্রেনি-পেশার সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়লে গ্রাহকদের জমানো টাকা ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ব্র্যাকের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ। সংকটকালে সঞ্চয়ের টাকা ফেরত দেয়ায় অত্যন্ত খুশি হয়ে ব্র্যাক এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন গ্রাহকগণ।

চন্দ্রখানা বুদারবার্নি গ্রামের গ্রাহক সুলতানা, বালাটারী গ্রামের জাহিলা বেগম, কবির মামুদ গ্রামের মহিলা কলেজ পাড়ার রাহেলা, নাওডাঙ্গা পুলেরপাড়ের আরতী রানী, পানিমাছকুটি গ্রামের শেফালী বেগম, জায়গিরটারী গ্রামের মেরি বেগম, শিমুলবাড়ী গুয়াবাড়ী ঘাটের রুবিনা বেগমের সাথে কথা হলে তারা জানান, লকডাউনের কারনে তাদের পরিবারের উপার্জন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।

সামনে ঈদের বাড়তি খরচ কিভাবে সামাল দিবেন এ নিয়ে ছিলেন মহা দুঃশ্চিন্তায়। এই দুঃসময়ে নিজেদের জমানো টাকা পেয়ে তারা চিন্তামুক্ত হতে পেরেছেন।

ব্র্যাক ফুলবাড়ী শাখা কুড়িগ্রামের ম্যানেজার মোঃ শামীম মিয়া বলেন, আমাদের কর্মীরা প্রতিনিয়ত মোবাইল ফোনে গ্রাহকদের খোঁজখবর নিয়ে যাচ্ছেন। সেই সাথে স্বাস্থ্য সচেতনতা মূলক পরামর্শও প্রদান করছেন এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার প্রয়োজন রয়েছে কি-না সে বিষয়েও খোঁজ-খবর রাখছেন। যারা সংকটে আছেন, তাদেরকে সঞ্চয়ের টাকা বিকাশে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

নাগেশ্বরী-কুড়িগ্রাম এলাকা ব্যবস্থাপক (দাবি) মোঃ শরিফুল ইসলাম বলেন, গ্রাহকদের চাহিদার ভিত্তিতে কঠোর লকডাউনে ব্র্যাক অফিস বন্ধ থাকলেও কুড়িগ্রাম জেলার মাইক্রোফাইন্যান্স দাবি কর্মসূচির ২৩৭ জন গ্রাহক কে ২ হাজার টাকা করে মোট ৪ লক্ষ ৭৪ হাজার টাকা তাদের সঞ্চয় থেকে বিকাশের মাধ্যমে প্রদান করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে