বদলগাছিতে গরু ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত: জুলাই ১৪, ২০২১; সময়: ৭:৪৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বদলগাছী : নওগাঁর বদলগাছিতে মজিদুল ইসলাম (৬০) নামে এক গরু ব্যাপারিকে তার ব্যবসার সাবেক অংশীদার কুপিয়ে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় বুধবার বদলগাছি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত মজিদুল ইসলামের ছেলে মিঠুন হোসেন বাদি হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন।

এ ঘটনায় মকছেদ আলী (৫০) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। তিনি এ মামলার প্রধান আসামী বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহত মজিদুল ইসলামের বাড়ি উপজেলার কোলা ইউপির ভোলার পালশা গ্রামে। গ্রেপ্তার হওয়া মকছেদ আলী একই ইউপির খামার আক্কেলপুর গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রায় ১৭-১৮ বছর ধরে মজিদুল ইসলাম ও মকছেদ আলী যৌথভাবে গরুর ব্যবসা করে আসছিলেন। ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে দুই বছর আগে মজিদুল ইসলাম আলাদাভাবে ব্যবসা শুরু করেন। দুই মাস আগে ব্যবসার হিসাব নিকাশ নিয়ে ভান্ডারপুর বাজারে তাঁদের দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়।

মজিদুল ইসলাম মঙ্গলবার কোলার হাটে দুইটি গরু ১ লাখ ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি করে ভান্ডারপুর বাজারের উদ্দ্যেশে রওনা দেন। পথে রাত্রি সাড়ে ৮টার দিকে মুক্তির মোড়ে মকছেদ আলীসহ তাঁর আরও তিন সঙ্গী মজিদুলের পথরোধ করে তাঁর চোখ গামছা দিয়ে বেঁধে তাঁকে ফাঁকা ফসলি মাঠের আমজাদের মরিচ ক্ষেতে নিয়ে যায়। তাঁরা সেখানে মজিদুল ইসলামকে ধারালো চাকু দিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

মজিদুল ইসলাম জ্ঞান ফিরে পেয়ে ভোর চারটার দিকে নিজ বাড়িতে আসেন। সেখান থেকে তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখাকার চিকিৎসকেরা উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। রাজশাহীতে নেওয়ার পথে বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় তাঁর মৃত্যু হয়।

বদলগাছি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুল ইসলাম বলেন, নিহত গরু ব্যবসায়ী মজিদুল ইসলামের ছেলে মিঠুন হোসেন বাদি হয়ে থানায় প্রথমে একটি মারপিটের মামলা করেছিলো। এখন মজিদুল মারা যাওয়ায় সেই মামলাটি এখন হত্যা মামলায় রুপান্তরিত হলো। এ মামলার প্রধান আসামী মকছেদ আলীকে বুধবার বিকেলে মাতাজিহাট থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে