তাবিজে ‘কাজ না হওয়া’য় নারী কবিরাজকে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত: জুলাই ১২, ২০২১; সময়: ২:৩৮ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : পছন্দের মেয়েকে বশে আনতে নেওয়া তাবিজে কাজ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে নারী কবিরাজকে এক তরুণ কুপিয়ে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় আহত হয়েছেন তিনজন।  সোমবার সকাল ছয়টার দিকে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার শীলকূপ ইউনিয়নের টাইমবাজারের পশ্চিমে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত তরুণকে আটক করা হয়েছে।

নিহত ওই নারীর নাম ফাতেমা বেগম (৪২)। তিনি স্থানীয় বাসিন্দা মোস্তাক আহমদের স্ত্রী। তিনি ঝাড়ফুঁকের কাজ করতেন। আহত তিনজন হলেন ফাতেমার মেয়ে পাখি আক্তার (২২), আত্মীয় রাবেয়া বেগম (৩৫) ও রাবেয়ার মেয়ে বৃষ্টি (১০)। আটক অভিযুক্ত তরুণ হলেন মোহাম্মদ এহেছান (২২)। তিনি একই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মাইজপাড়া এলাকার মো. ইব্রাহীমের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পছন্দের এক মেয়েকে বশ করার জন্য কয়েক দিন আগে ফাতেমার কাছ থেকে তাবিজ নেন মোহাম্মদ এহেছান। ওই তাবিজে কাজ না হওয়ায় আজ সকালে এসে ফাতেমার কাছে কারণ জানতে চান তিনি। এ সময় একটি ডাবে ঝাড়ফুঁক করে দিতে বলেন এহেছান। এতে রাজি না হওয়ায় এহেছান ক্ষুব্ধ হয়ে রান্নাঘর থেকে দা এনে ফাতেমাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে শুরু করেন। এতে ওই নারীর ঘাড়, পিঠ ও মাথায় আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হন। এ সময় তাঁকে বাধা দিতে গিয়ে তিনজন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখান থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে ফাতেমা মারা যান।

নিহত ফাতেমার ছেলে মো. বাদশা বলেন, ‘সকালে বাড়িতে এসে আমার মাকে কোপাতে থাকে এহেছান। আমি মা হত্যার বিচার চাই।’ বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সফিউল কবীর বলেন, নিহত নারীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। আটক করা হয়েছে অভিযুক্ত এহেছানকে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে