পত্নীতলায় আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তাগণ

প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০২১; সময়: ৫:২৪ pm |

মাসুদ রানা,পত্নীতলা : নওগাঁর পত্নীতলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ন-২প্রকল্পের অধীনে ১মও২য় পর্যায় র্নিমিত/র্নিমানাধীন ঘর সমূহ পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তাগন।

শনিবার (১০ জুলাই) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তা প্রকল্পের সহকারী পরিচালক বদরুল আলমের নেতৃত্বে একটি কারিগরী টিম উপজেলার বাদপুইয়া ও চান্দইলে মোট ২৭ টি ঘর পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে ঘরগুলোর ভেতর ও বাহিরে ভাল করে দেখেন এবং ঘরে বসবাসরত উপকারভোগীদের সাথে কথা বলে তাঁরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন ।

এসময় সঙ্গে ছিলেন উপ সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল তানিম ও মো: আরিফুল ইসলাম। এ সময় আরোও উপস্থিত ছিলেন নওগাঁর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মিল্টন চন্দ্র রায়, পত্নীতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. লিটন সরকার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সানজিদা সুলতানা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) শোয়েব খান, উপজেলা প্রৌকশলী সৈকত দাস , জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিক বৃন্দ প্রমূখ। উল্লেখ উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নে ১ম পর্যায়ে ১১৪টি ও ২য় পর্যায়ে ১১৭ টি ঘর নির্মাণ হয়েছে ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. লিটন সরকার বলেন আন্তরিকতার সাথে শতভাগ ড্রয়িং,ডিজাইন এবং এস্টিমেট অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে এরপরও কোথাও যদি ছোটখাট কোন সমস্যা দেখা দেয় তা সংগে সংগে ঠিক করে দেয়া হবে তিনি আরো অনুরোধ করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এ মহৎ উদ্যেগের বাস্তবায়নে দু একটি ছোটখাট সমস্যার কারনে ঢালাও সমালোচনা না করে বরং এ প্রকল্পের কাজ আরো সুন্দরভাবে বাস্তবায়নে সকলের গঠন মুলক পরামর্শ এবং মিডিয়া সহ সকলের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন ভুমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত বাংলাদেশ গঠনে উপজেলা প্রশাসন পত্নীতলা সামনের দিনগুলোতে আরো স্বচ্ছতা ও দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করে যাবে ।

চান্দইল এলাকার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী সম্প্রদায়ের উপকারভোগী নারী ফুলমনি বলেন তাদের কোন ঘর ছিলনা , ব্যাড়া দিয়ে ঝুপড়ি করে থাকতেন অন্যের জমিতে, সারা দিন কাজ করে এসে বৃষ্টির দিনে খুব কষ্ট হতো , রাতে ঘুম হতো না বাচ্চাদের নিয়ে রাতে বসে থাকতে হতো।

জমিসহ ঘর পেয়ে ফুলমনি খুব খুশি, আবেগ আপ্লুত হয়ে বলেন তার নিজের নামে জমি ও ঘর হবে কোনদিন কল্পনাও করেন নি , প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘ জীবন ও সুস্থতা কামনা করেছেন তিনি। প্রধান মন্ত্রীর উপহার জমিসহ ঘর পেয়ে ফুলমনির মতো অনেকেই নতুন করে বাঁচবার স্বপ্ন দেখছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে