নওগাঁর মহাদেবপুরে গরুর হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযোগ

প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০২১; সময়: ৫:০০ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহাদেবপুর : দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন চলাকালে শনিবার (১০ জুলাই) মহাদেবপুর উপজেলা সদরে গরুর বৃহৎ হাট বসেছে। হাটের নির্ধারিত স্থানের পরিবর্তে ডাকবাংলো মাঠে এ হাট বসে। শুক্রবার নওগাঁ জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন অর রশিদ স্বাস্থ্যবিধি মেনে নওগাঁ জেলার সকল পশুর হাট চলার ঘোষণা দেন।

তবে জেলা প্রশাসকের ঘোষণা অনুযায়ী হাটে স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়নি। শনিবার দুপুরে এ হাটে গিয়ে দেখা যায় উপচে পড়া ভীড়। ক্রেতা-বিক্রেতারদের মাঝে ছিলোনা স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই। অনেক ক্রেতা-বিক্রেতার মুখে ছিলোনা মাস্ক। কেউ কেউ মাস্ক নিয়ে এলেও সঠিকভাবে না পড়ে মুখের নিচে ঝুলিয়ে রাখেন। হাটজুড়ে স্বাস্থ্যবিধি মানানোর জন্য প্রশাসনের কোন তৎপরতা দেখা যায়নি।

এদিকে হাটে অতিরিক্ত খাজনা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ক্রেতারা। উপজেলার পাশ্ববর্তী শিবপুরহাট সহ অন্যান্য হাটে গরু প্রতি ৩শ’ টাকা খাজনা নেয়া হলেও এ হাটে গরু প্রতি ৬শ’ টাকা খাজনা আদায় করা হচ্ছে। এছাড়া ছাগলের খাজনা আদায় করা হচ্ছে আরো বেশি। ছাগলের দামের শতকরা ১০টাকা হিসেবে খাজনা নেয়া হচ্ছে বলে ক্রেতাদের অভিযোগ।

এতে একজন ক্রেতা ১০ হাজার টাকায় ছাগল ক্রয় করলে তাকে ১ হাজার টাকা খাজনা দিতে হচ্ছে। খাজনা আদায়ের রশিদে টাকার ঘর ফাঁকা রেখেই রশিদ দেয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয়। হাটে খাজনা আদায়ের তালিকা ঝুলানোর নিয়ম থাকলেও এ হাটের কোথাও খাজনা আদায়ের তালিকা দেখা যায়নি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, গরু প্রতি ৪শ ও ছাগল প্রতি ১শ ৫০ টাকা খাজনা আদায়ের বিধান রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে