ধামইরহাটে সেনা সদস্যের পিতার হত্যাকারীদের বিচারের দাবি

প্রকাশিত: জুলাই ৭, ২০২১; সময়: ৮:১৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, ধামইরহাট : নওগাঁর ধামইরহাটে সেনা সদস্যের পিতার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলন করেন সেনা সদস্য কাইফুর ইসলাম। ঘটনার সময় একটি ভিডিও বিভিন্ন মাধ্যমে ফাঁস হয়েছে।

দুপুর ১২টায় ধামইরহাট উপজেলা প্রেসক্লাবে পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে সেনা সদস্য ল্যান্স কর্পোরাল কাইফুর ইসলাম জানান, গত ২২ জুলাই উদয়শ্রী গ্রামে নিজ বাড়ির প্রাচীর নির্মাণ কাজ চলছিল। এ সময় প্রতিবেশী আব্দুল গনির পরিবার বাধা দিলে সংঘর্ষ বাধে। এক পর্যায়ে গনির লোকজন পরিবারের সদস্যদের বাঁশ ও রড দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে পিটায়। এতে সেনা সদস্যের বাবা ইসমাইল হোসেন গুরুতর জখম হন। চিকিৎসার জন্য প্রথমে ধামইরহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সবশেষে তার অবস্থা আও খারাপ হলে বগুড়া সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে মধ্যরাতে চিকিৎসক ইসমাইল হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই সেনা সদস্য আরও জানান, ঘটনার পর ১২ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা হলেও মূল আসামীসহ অধিকাংশরাই রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। আসামীরা প্রভাবশালী হওয়ায় ভিকটিমের পরিবারে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে দ্রুতই আসামীদের গ্রেপ্তার করে আইনী শাস্তি নিশ্চিতের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানান তারা।

সম্মেলনে মামলার বাদী ও মৃত ইসমাইলের স্ত্রী মেহেরুন নেছা, ভাই মাইনুল ইসলাম, জামাই খাইরুল ইসলাম, চাচাতো ভাই সেকেন্দার আলী, ভাতিজা আশিক ইসলাম, নারী নেত্রী ও সমাজসেবী মাহফুজা সরকারসহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে ধামইরহাট থানার ওসি আবদুল মমিন জানান, ঘটনার বিষয়ে হত্যা মামলা রুজু হয়েছে। ৪ জন আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে থানা পুলিশ মাঠে কাজ করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে