ভারত থেকে পুশ-ইন করার সময় সাপাহার সীমান্তে ৮ নারী-পুরুষ আটক

প্রকাশিত: জুলাই ৬, ২০২১; সময়: ৬:৫৬ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ : নওগাঁর সাপাহার সীমান্তে ভারত থেকে পুশইন করার পর ৮ জন বাংলাদেশী নারী-পুরুষকে আটক করে স্থানীয় সাপাহার থানায় সোপর্দ করেছে ১৬ বিজিবি কোম্পানী হাপানিয়া বিওপি ক্যাম্পের সদস্যরা। মঙ্গলবার ভোরে ভারতীয় বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে সাপাহার সীমান্ত এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে পুশইন করে বলে তারা জানান।

সাপাহার উপজেলার হাপানিয়া বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার নায়েব সুবেদার মো. আজিজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মঙ্গলবার অনুমানিক ভোর ৪টার দিকে হাপানিয়া সীমান্তের হরিণ মাঠ নামক এলাকা হতে টহলরত বিজিবি সদস্যরা ভারত থেকে পুশইন হয়ে আসা ব্যক্তিদের আটক করে। সকালে তাদেরকে স্থানীয় থানায় সোপর্দ করে। বেশ কিছুদিন পূর্বে আটককৃত ব্যক্তিরা একত্রে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধভাবে ভারত অভ্যন্তরে প্রবেশ করে। এরপর বিএসএফ সদস্যদের হাতে আটকা পড়ে। ভারতীয় আইনে দমদম জেলখানায় জেল হাজত খাটার পর ছাড়া পায়। এরপর মঙ্গলবার ভোরে বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে সাপাহার সীমান্ত এলাকা দিয়ে বাংলাদেশ অভ্যন্তরে পুশ ইন করে দেয় বলে বিজিবিরা জানান।

বিজিবির হাতে আটককৃত ব্যক্তিরা হচ্ছেন- বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জের আঃ রহমান গাজীর ছেলে মো. জহুর আলী গাজী (৩৭), শ্যামনগরের শামসুর রহমান গাজীর ছেলে মো. হাসান আলী (৩২), শ্যামনগরের আবু হাসানের স্ত্রী মোসা. নুরনাহার বেগম (২৭) একই থানার জহর আলী গাজীর মেয়ে মোছা. সালমা পারভীন (৩০)। জয়পুর হাট জেলার পাঁচবিবির মো. আতিয়ার রহমানের ছেলে মো. শরিফুল ইসলাম (২৭), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার মো. আলিফ খালাসীর মেয়ে মোসা: সেনিয়া খাতুন (২৫), ময়মনসিংহ জেলার কোতোয়ারী থানার জাহাঙ্গীর আকন্দ এর মেয়ে মোসা. সাদিয়া খন্দকার ইভা (২৪), কুড়ীগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী থানার আবুল হোসেনের মেয়ে মোসা. পপি আক্তার (২১)।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে ১৯৫২ সালের কন্ট্রোল অব এন্ট্রি এ্যাক্ট এর ৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। পরে তাদেরকে নওগাঁ কোর্টে চালান করা হয়েছে বলে জানান সাপাহার থানার ওসি তদন্ত আল-মাহমুদ।

  • 137
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে