সান্তাহারে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও কঠোর প্রশাসন

প্রকাশিত: জুলাই ২, ২০২১; সময়: ৯:০৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, আদমদীঘি : সারাদেশে সরকার ঘোষিত এক সপ্তাহের লকডাউন কঠোরভাবে বাস্তবায়নে দ্বিতীয় দিনেও বগুড়ার আদমদীঘিসহ সান্তাহারে মাঠে নেমেছে স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনী। এই লকডাউন বাস্তবায়নে আদমদীঘি উপজেলায় সেনাবাহিনীর ও পুলিশের টিম মোতায়েন আছে। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত এবং গুরুত্বপূর্ন মোড়ে মোড়ে পুলিশের চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

শুক্রবার সরেজমিনে এমন চিত্র দেখা যায়। লকডাউন ও বৃষ্টিতে ফাঁকা শহরের মেইন সড়ক গুলো, তবে সকাল থেকে অযথা রাস্তাঘাটে কিছু মানুষকে চলাচল করতে দেখা গেছে। আবার অনেকে প্রয়োজনে পায়ে হেঁটে ও বাইসাইকেল চালিয়ে নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছাতে দেখা গেছে। দুই একটি রিকশা-ভ্যান, জরুরি পরিসেবার যানবাহন ছাড়া বন্ধ রয়েছে সকল ধরনের ইঞ্জিনচালিত যানবাহন। এছাড়াও যারা অযথা রাস্তাঘাটে চলাচল করছে তাদের পুলিশি জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে। বন্ধ আছে সকল ধরনের দোকানপাট, শপিংমল ও বিপনী বিতান।

এ বিষয়ে সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আরিফুল ইসলাম জানান, সারা দেশে করোনা সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ১ জুলাই থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত সাতদিনের কঠোর লকডাউন জারি করেছে। জারিকৃত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সান্তাহার (১ জুলাই) থেকে এই লকডাউন বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। সে অনুযায়ী সান্তাহারে সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।

তিনি আরও জানান, বিধিনিষেধ চলাকালীন আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার অভ্যন্তরীণ সকল রুটে এবং আন্তঃজেলা বাস, ও সকল প্রকার গণপরিবহনসহ সিএনজি, ভ্যান, মোটরসাইকেল, থ্রি-হুইলার, বন্ধ থাকবে। তবে রোগী পরিবহনকারী অ্যাম্বুলেন্স, পণ্য বহনকারী ট্রাক এবং জরুরি সেবাদানকারী পরিবহন এই বিধিনিষেধের আওতামুক্ত থাকবে।

এছাড়া কাঁচাবাজার ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান স্বাস্থ্য বিধি মেনে খোলা থাকবে। তবে সকল ধরনের দোকানপাট, শপিংমল, হোটেল, রেস্তোরাঁ, চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে। ওষুধের দোকান সার্বক্ষণিক খোলা রাখা যাবে বলে জানান তিনি।

  • 240
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে