৩৩৩-এ কল করে গুরুদাসপুরের ৪৩৬ পরিবার পেল খাদ্যসামগ্রী

প্রকাশিত: জুলাই ১, ২০২১; সময়: ৮:০৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর : ৩৩৩- নম্বরে কল করে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার ৩৩৬টি পরিবার প্রধানমন্ত্রীর উপহারের খাদ্য সামগ্রী পেয়েছেন। ৩৩৬টি পরিবারের মধ্যে গত বুধবারই (৩০ জুন) ১০৪টি পরিবার এই সুবিধা পেয়েছেন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানা গেছে, গত এক সপ্তাহে গুরুদাসপুর পৌরশহরসহ ইউনিয়ন পর্যায়ের গ্রাম থেকে ৪৩৬টি পরিবার জাতীয় তথ্য সেবা নম্বর ৩৩৩-এ ফোন করে খাদ্য সহায়তা চেয়েছিলেন। তথ্যগুলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মোবাইল নম্বরে এসএমএস করা হয়। এসএমএস যাচাইয়ের করে নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন তার স্বেচ্ছাসেবক দল নিয়ে প্রত্যন্ত গ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দিন গড়ানোর সাথে সাথে বাড়ছে ৩৩৩ নম্বরে ফোন কলের সংখ্যা। ফোন কলগুলোর তথ্য উপজেলা প্রশাসনের রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করা হয়। এরপর উপজেরা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামে এসব খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ১০ কেজি চাল, ডাল ও তেল রয়েছে।

গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তমাল হোসেন বলেন, লকডাউনে উপার্জন নেই, অতিবৃষ্টি ও করোনা কারণে এসব পরিবারের কর্মক্ষম মানুষগুলো কাজ করতে পারছেন না। তাছাড়া সরকারের গৃহীত নানা কর্মসূচির সুযোগ-সুবিধা থেকেও তাঁরা বঞ্চিত। কর্মমুখী এসব পরিবারগুলো গরিব হলেও আত্মসম্মানের কারণে অন্যের কাছে হাত পাততে পারেননি। অনেকটা নিরুপায় হয়েই তাঁরা ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে খাদ্যসহায়তা চেয়েছিলেন। তাৎক্ষণিকভাবে কিছু পরিবারকে অতি গোপনে, রাতে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উপজেলা প্রশাসনের স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে খোঁজখবর নিয়ে পরিবারগুলোকে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

ইউএনও তমাল হোসেন আরও বলেন, ৩৩৩-এ খাদ্যসহায়তা চাওয়া পরিবারগুলোকে সরকারের গৃহীত কর্মসূচির আওতায় আনার জন্য সংশ্লিষ্ট এলাকার জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এসব কাজে তাকে সার্বক্ষণিক সহায়তা দিচ্ছেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আবু রাসেল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে