গৃহবধূকে পাচারের অভিযোগ, স্বামীসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২১; সময়: ৫:৪৪ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নওগাঁর মান্দায় জোসনা বিবি (৪০) নামে এক গৃহবধূকে পাচারের অভিযোগ এনে স্বামীসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গত ১৭ জুন নওগাঁর মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ মামলাটি করেন ভিকটিমের ভাই আকবর আলী। মামলাটি রেকর্ডভূক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মান্দা থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মামলার আসামিরা হলেন, ভিকটিম গৃহবধূর স্বামী উপজেলার কশব ইউনিয়নের চকসিদ্ধেশরী গ্রামের মৃত জেহের আলীর ছেলে মামুনুর রশিদ (৫০), তার তৃতীয় স্ত্রী মোর্শেদা বিবি (৪৫), ছেলে রুবেল হোসেন (২৮) ও পুত্রবধূ বিপাশা বিবি (২৬)।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চকসিদ্ধেশরী গ্রামের মামুনুর রশিদের সঙ্গে প্রায় ১১ বছর আগে মামলার বাদি উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের নাপিতপাড়া গ্রামের আকবর আলীর ছোটবোন ভিকটিম জোসনা বিবির বিয়ে হয়। আসামি মামুনুর রশিদের এটি দ্বিতীয় বিয়ে ছিল। এর পর মোর্শেদা বিবি নামে আরেক নারীকে তৃতীয় বিয়ে করেন মামুন। ভিকটিম স্বামীর সংসার করাকালে বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছিলেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, স্বামীর প্রথম স্ত্রীর ছেলে রুবেল হোসেন গ্রামীণফোনে চাকরি করেন। চাকরির সুবাদে রুবেল হোসেন তার স্ত্রী বিপাশাকে নিয়ে এলাকার বাইরে অবস্থান করেন। সতিনের ছেলে রুবেল হোসেনের শিশু সন্তানকে দেখাশোনার জন্য প্রায় দুইবছর আগে ভিকটিম জোসনা বিবিকে তাদের কর্মস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। ভিকটিম জোসন্ াবিবি সেই থেকে তাদের সংসার দেখাশোনা করে আসছিলেন।
এ অবস্থায় গত ৩ জুন থেকে তাদের হেফাজত থাকা ভিকটিম জোসনা বিবি নিরুদ্দেশ হন। এনিয়ে ১০ জুন ভিকটিম জোসনা বিবির সন্ধান জানতে ভগ্নিপতি মামুনুর রশিদের বাড়িতে গেলে মামলার বাদি আকবর হোসেনকে ভয়ভীতিসহ বিভিন্নভাবে হুমকি দেন আসামিরা।

মামলার বাদি আকবর হোসেন বলেন, টাকার লোভে পড়ে তার বোন ভিকটিম জোসনা বিবিকে পাচার করে দেওয়া হয়েছে। ভগ্নিপতি ও তার সহযোগীদের হুমকিতে সন্দিহান হয়ে তিনি মানবপাচার আইনে আদালতে মামলা করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান জানান, আদালতের নির্দেশে মান্দা থানায় সোমবার (২৮ জুন) মামলাটি রুজু করা হয়েছে। মামলাটির তদন্ত শুরু করেছেন থানার উপপরিদর্শক হাবিবুর রহমান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে