আদমদীঘিতে লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর প্রশাসন

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২১; সময়: ১০:৩২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, আদমদীঘি : বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার পৌর এলাকায় করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করেছে উপজেলা প্রশাসন। সোমবার সকাল থেকে জাতীয়ভাবে লক বা শাটডাউন ঘোষণার আগ পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা অব্যহত থাকবে।

উপজেলা প্রশাসনের জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসন সোমবার রাত ১২টা থেকে জরুরি পরিষেবা দোকানপাট, শপিং মল, মার্কেট, সব ধরনের খাবারের দোকান, হোটেল, রেস্তুরা বন্ধ থাকবে এবং ইজিবাইক, রিকশা, ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহন সান্তাহার পৌর শহরে চলাচল করতে পারবেনা। এছাড়া হাট-বাজার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া থাকলেও সকাল থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির বাজার বিকেল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। বিধি-নিষেধ অমান্য করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার সীদ্ধান্ত হয়।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সান্তাহার পৌর শহরের একাডেমী স্কুলের সামনে, হবীর মোড়, সাইলো সড়কের তিয়রপাড়া মোড়, সরকারি কলেজ গেট, যোগীপুকুর মোড়, বাঁশহাঁটি, খাড়ি ব্রিজসহ সাতটি পয়েন্টে বাঁশের ব্যারিকেট দিয়ে শহরের প্রবেশদ্বার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এসব স্থানে পুলিশ রাখা হয়েছে। অকারণে মানুষ যাতে বাইরে ঘোরাফেরা না করতে পারে, সেজন্য উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত ও পুলিশ বাহিনী রয়েছে কঠোর ভূমিকায়। পৌর শহরের মধ্যে সকল প্রকার দোকারপাট বন্ধ রাখতে দেখা গেছে। চলছেনা যানবাহন।

সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক আরিফুল ইসলাম জানান, বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে পুলিশ প্রশাসনের কঠোর নজরদারী রয়েছে। তাছাড়া সার্বক্ষণিক খোলা থাকবে ওষুধের মতো জরুরি পরিষেবার দোকান। হোটেল-রেস্তোরাঁ খোলা রাখলেও থাকছে না বসে খাওয়ার সুযোগ, কেবল পার্সেল নেওয়া যাবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সীমা শারমিন গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, বিধি-নিষেধ না মানলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • 138
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে