শিবগঞ্জে সাবমার্সিবল পাম্প দখলের অভিযোগ

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২১; সময়: ৯:৪৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে সাবমার্সিবল পাম্প নিজ দখলের নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চককীর্তি ইউনিয়নের বাঁশতলা এলাকায়। প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগীরা।

সোমবার সকালে সরজমিনে গিয়ে জানা গেছে- বাঁশতলা এলাকার সেতাউর রহমানের বাড়ির আঙ্গিনায় একটি সাবমার্সিবল পাম্প স্থাপন করে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। সাবমার্সিবল পাম্পে দশটি পরিবার পানি সরববরাহ করে থাকতে পারবেন। কিন্তু কয়েকদিন যেতেই সেতাউর রহমান পরিবারের সদস্যরা সাবমার্সিবুল পাম্পের চারদিন ঘিরে ফেলে। এমনকি কাউকে পানি দিবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন। এতে বিপাকে পড়ে প্রতিবেশী।

জানা গেছে, সারাদেশে নিরাপদ পানি সরবরাহ বৃদ্ধির মাধ্যমে জনগণের স্বাস্থ্য ও জীবন মান উন্নয়নের লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। দশটি পরিবার মিলে এই পানি ব্যবহার করার কথা রয়েছে। কিন্তু বাস্তবে তা উল্টো।

এলাকাবাসী জানায়, শেখ হাসিনা সরকার দশটি পরিবার মিলে একটি সাবমার্সিবুল পাম্প দিয়েছে। কিন্তু সেতাউর রহমান নিজে পাম্পের চারদিন ঘিরে একা পানি ভোগ করছে। প্রতিকার চেয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ভূক্তভোগী এলাকাবাসী।

ভূক্তভোগী জরিনা বেগম জানান, এই পাম্পে দশটি পরিবার পানি ব্যবহার করতে পাবে বলে শুনেছি। কিন্তু কাউকে পানি দেয় না। এমনকি চারদিন টিনসেড দিয়ে ঘিরে রেখেছে। পানির অভাবে পাশের কুয়া থেকে পানি আনতে হয়। তাছাড়া পাম্পে পানি না দিলে তো আর জোর করা যায়না।

তবে সেতাউর রহমানের স্ত্রী আখতারা বেগম বলেন, জায়গার অভাবে পাম্পটি আঙ্গিকায় স্থাপন করা হয়েছে। তাই চারদিন ঘিরে রেখেছি। তবে প্রতিবেশীদের সুবিধার জন্য টিনসেড সরিয়ে নিবো।

এ বিষয়ে জানতে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী বাবুল আখতার বলেন, ঘটনাটি আমার জানা নেই। জরুরী ভিত্তিতে খোঁজখবর নিয়ে পানি ব্যবহারের জন্য জায়গাটি উন্মুক্ত করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে