খুলনায় লকডাউনের চতুর্থ দিনে মুত্যু ৯

প্রকাশিত: জুন ২৫, ২০২১; সময়: ১২:৫৭ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : খুলনায় চলছে লকডাউন, তবে মৃত্যুর সংখ্যা কমছে না। লকডাউনের চতুর্থ দিন আজ শুক্রবার (২৫ জুন) করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর মধ্যে খুলনা মেডিকের কলেজ হাসপাতালের ১৩০ শয্যাবিশিষ্ঠ ডেডিকেটেড হাসপাতালের করোনায় আক্রান্ত ৫ জন এবং ১ জন উপসর্গ নিয়ে মারা যায়। এছাড়া ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ১ জন এবং গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনায় পজিটিভ হওয়া ২ জনের মুত্যু হয়।

এছাড়া ১৩০ শয্যার করোনা হাসপাতালে আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত ১৫৪ জন রোগী ভর্তি ছিল। যার মধ্যে রেড জোনে ৯৬ জন, ইয়ালো জোনে ২৩ জন, এইচডিইউতে ২০ জন এবং আইসিইউতে ১৬ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৩৯ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২ জন।

খুলনা ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় খুলনার রূপসা উপজেলার সরদার মনিরুল (৬৮) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৬৯ জন। এরমধ্যে ৩০ জন পুরুষ ও ৩৯ জন নারী রয়েছেন।

গাজী মেডিক্যালে ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- নগরীর সোনাডাঙ্গা এলাকার শাহানা জামান ও পিরোজপুর সদরের রহিমা (৮০)।

এদিকে, শুক্রবার (২৫ জুন) সকাল থেকে জেলার অভ্যন্তরে অথবা আন্তঃজেলা গণপরিবহন চলাচল করছে না। খুলনা রেলস্টেশনে ট্রেনের আগমন ও বহিরাগমন বন্ধ রয়েছে। সব ধরনের দোকানপাট, মার্কেট, শপিংমল ও কোচিং সেন্টারসমূহ বন্ধ রাখা হয়েছে। মানুষের সমাগম কম দেখা গেছে।

খুলনায় ২৮ জুন পর্যন্ত চলবে এই লকডাউন। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ও কাঁচাবাজারের দোকান প্রতিদিন সকাল সাতটা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত খোলা থাকছে। ওই সময়ের মধ্যে হোটেল-রেস্তোরাঁগুলো পার্সেল আকারে খাবার সরবরাহ করতে পারবে।

ওষুধের দোকান সার্বক্ষণিক খোলা রাখা যাবে। সব ধরনের পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে