নিয়ামতপুরে পাচ্ছে ৭৫ ভূমিহীন পরিবার

প্রকাশিত: জুন ১৯, ২০২১; সময়: ৬:১৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, নিয়ামতপুর : প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ৭৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান করা হবে। আগামীকাল রবিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করবেন। শনিবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়া মারীয়া পেরেরা।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীনদের জমি ও গৃহ প্রদানের ২য় পর্যায়ে ইতিমধ্যেই ৭৫টি গৃহ নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। যা রবিবার প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়া মারীয়া পেরেরার সভাপতিত্বে প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিলুফা সরকার।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়া মারীয়া পেরেরা জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারস্বরূপ নওগাঁর নিয়াতমপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দুই পর্বে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মোট ১৪৬টি টিনসেড পাকা ঘর।

তিনি আরো বলেন, ১ম পর্বে প্রাপ্ত ৭১টি ঘর ইতোমধ্যে উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। ২য় পর্বে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘর উপহার হিসেবে পাচ্ছেন আরও ৭৫টি ভূমিহীন পরিবার। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও ভূমি অফিসের সহযোগিতায় প্রকৃত ভূমিহীনদের চিহ্নিত করে কাজের মান ঠিক রেখে এসব ঘর নির্মিত হচ্ছে।

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে নিয়ামতপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে উপহার হিসেবে দ্বিতীয় দফায় প্রাপ্ত ৭৫টি ঘর আগামীকাল উপকারভোগীদের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে।

৭৫টি ঘরের মধ্যে হাজিনগর ইউনিয়নে ২০টি, চন্দননগর ইউনিয়নে ৬টি, নিয়ামতপুর সদর ইউনিয়নে ২৬টি, রসুলপুর ইউনিয়নে ১০টি, পাড়ইল ইউনিয়নে ৪টি, শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নে ৪টি ও বাহাদুরপুর ইউনিয়নে ৫টি।

উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সরকারি খাসজমিতে হতদরিদ্র পরিবারের জন্য নির্মাণ করা হচ্ছে এসব সরকারি ঘর। যাদের থাকার জমি ও ঘর নেই তাদের পুনর্বাসনের জন্য এসব ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রায় ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে দুই কক্ষ বিশিষ্ট বারান্দাসহ সেমিপাকা ঘর, রান্নাঘর ও বসত ঘরের সঙ্গে থাকছে টয়লেটও। ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হলে গৃহহীনদের মধ্যে এগুলো হস্তান্তর করা হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, সহ-সভাপতি জাবেদ আলী, সাধারণ সম্পাদক জনি আহমেদসহ উপজেলায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে