সাতক্ষীরায় করোনায় মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

প্রকাশিত: জুন ১৯, ২০২১; সময়: ৯:৫৫ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সীমান্ত জেলা সাতক্ষীরায় করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ডেডিকেটেড সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একদিনে সর্বোচ্চ ৮ জন মারা গেছে, যা একদিনের হিসেবে এটিই রেকর্ড মৃত্যু। শনিবার (১৯ জুন) সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে এসব করোনা রোগী মারা যান।

সরকারি তথ্য মতে, সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেল ২৬৬ জন, আর করোনায় মারা গেছে ৫৬ জন। বর্তমানে ৭ শতাধিক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। আর উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে কয়েক হাজার।
আর পিসিআর ল্যাবের টেস্টের পরিসংখ্যান মতে, করোনা সংক্রমণের হার ৬১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। চলমান লকডাউন কার্যকর না হওয়ায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চিকিৎসা নেয়া, করোনা বা করোনা উপসর্গে মৃত ব্যক্তিদের দাফনে কোনো প্রকার সতর্কতা মেনে না চলায় এ সংক্রমণ থামানো যাচ্ছে না বলে মনে করে সুশীল সমাজ।

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাতক্ষীরা-৩ আসনের এমপি ডা. রুহুল হক সময় সংবাদকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, অত্যন্ত ভয়ংকরভাবে করোনা সংক্রমণ এগিয়ে চলেছে। সাতক্ষীরায় হাজার হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত।
তিনি বলেন, ইন্ডিয়ান ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট অত্যন্ত শক্তিশালীভাবে দ্রুত সময়ে ছড়িয়ে যাচ্ছে। করোনায় এত লোক আক্রান্ত হতে দেখা যায়নি, দেখা যায়নি এত লোক মারা যেতে।

ডা. রুহুল হক বলেন, সবই প্রতিরোধযোগ্য। যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা যায়। আর সে জন্য ভ্যাকসিনের চেয়ে শক্তিশালী মাক্স পরে ৯০-৯৫ ভাগ ভাইরাস প্রতিরোধ করা। গতবার শিশুদের আক্রান্ত হতে কম দেখা গেছে, এবার শিশুরাও আক্রন্ত হচ্ছে। গতবার বেশির ভাগ বয়স্করা আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছে। এবার তাও ভিন্ন। তাই জনগণকে বোঝাতে সর্বদলীয় ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নামার আহ্বান তার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে