কুমিল্লায় বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত প্রাইভেট কারের তিন যাত্রী

প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২১; সময়: ২:২৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগঞ্জ এলাকায় শ্যামলী পরিবহনের বাসের ধাক্কায় একটি ব্যক্তিগত গাড়ির (প্রাইভেট কার) তিন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কারের এক যাত্রী আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত তিনটার দিকে সুয়াগঞ্জ ইউটার্ন এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন লক্ষ্মীপুর জেলার হামন্দী এলাকার আলী হোসেনের ছেলে ফখরুল আলম ওরফে মো. দুলাল (৫২), শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ি উপজেলার বাসিন্দা আবদুল মজিদের ছেলে বেলাল হোসেন (৩৫) ও রাজধানীর খিলগাঁও এলাকার মো. মিরাজ হোসেন (১৮)। বেলাল রাজধানী ঢাকার রামপুরা এলাকায় থাকতেন। তিনি প্রাইভেট কারটির চালক। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন মাহবুবুর রহমান (৩২) নামের এক ব্যক্তি। তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশের ময়নামতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনিসুর রহমান বলেন, কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগঞ্জ (স্থানীয়ভাবে সুয়াগাজী নামে পরিচিত) এলাকায় ইউটার্ন অতিক্রম করার সময় প্রাইভেট কারটির চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে। এতে ফখরুল ও মিরাজ ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঢাকায় নেওয়ার পথে বেলাল মারা যান। অপর যাত্রী মাহবুবুর রহমান বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।

ওসি আনিসুর রহমান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাস ও দুর্ঘটনাকবলিত দুমড়েমুচড়ে যাওয়া প্রাইভেট কারটি উদ্ধার করে। দুর্ঘটনার পর বাসের চালক ও হেল্পার (সহকারী) পালিয়ে যান। প্রাইভেট কারের যাত্রীরা ঢাকা থেকে নোয়াখালী যাচ্ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে