এনজিও থেকে টাকা তুলতে গিয়ে ৩ সন্তানের জননীকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত: জুন ১৪, ২০২১; সময়: ৯:৩২ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : এনজিও থেকে টাকা তুলতে গিয়ে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের স্মৃতিপাড়া এলাকায় ৩ সন্তানের জননীকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর গুরুতর আহত অবস্থায় ভিকটিমকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় বোরহানউদ্দিন থানায় একটি ধর্ষণ মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভোলার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভিকটিম গৃহবধূ ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান, রবিবার বিকালে স্থানীয় একটি এনজিও থেকে ঋণের টাকা আনতে যান ধর্ষণের শিকার ওই নারী। এনজিও থেকে টাকা উত্তোলন করে সন্ধ্যায় স্মৃতিপাড়ার এক আত্মীয়র বাসায় যান। সেখান থেকে রাত সাড়ে ৮ টায় বাড়ি ফেরার পথে আগে থেকে রাস্তায় ওৎপেতে থাকা স্থানীয় বখাটে সাহেদ, সুমন ও ইউসুফ ৩ সন্তানের জননী ওই নারীকে জোরপূর্বক বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এক পর্যায়ে তারা চলে যাওয়ার সময় এনজিও থেকে ঋণ করে আনা ১০ হাজার টাকাও ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার হওয়া ওই নারীকে প্রথমে বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। এর পর তাকে রাতে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভোলা সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. খালেদা ইসলাম মিতু জানান, ডাক্তারি পরীক্ষা ও নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। রিপোর্ট আসলে তা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল আমিন জানিয়েছেন, পুলিশ রবিবার রাতেই ভিকটিমের বক্তব্য শুনেছে। ভিকটিমের স্বামী যে লিখিত অভিযোগ করেছেন তার সাথে ভিকটিমের বক্তব্যের কিছুটা অমিল আছে। এ বিষয়ে সুনিদিষ্ট অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে