তাড়াশের নওগাঁ হাটে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে ইজারাদার

প্রকাশিত: জুন ৯, ২০২১; সময়: ৮:৫৫ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে প্রসিদ্ধ সাপ্তাহিক নওগাঁ হাটের ইজারাদারের বিরুদ্ধে হাট পেরিফেরির বাইরে টোল দাবি ও অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। হাট পেরিফেরির বাইরে স্থায়ী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে টোল দাবি করায় ব্যবসায়ীরা এর প্রতিকার চেয়ে ইউএনও বরাবর অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় গত সোমবার ইজাদারকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছেন ইউএনও।

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জের তাড়াশ, উল্লাপাড়া, পাবনার ভাঙ্গুড়া, চাটমোহর উপজেলার সীমান্তে করতোয়া নদীর তীরে তাড়াশের প্রসিদ্ধ সাপ্তাহিক নওগাঁ হাট। আর যোগাযোগ ও যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নতির কারণে এখানে চার উপজেলার হাজার হাজার মানুষ বৃহস্পতিবার হাটে কেনাবেচার জন্য আসেন। তাই হাটটির গুরুত্ব থাকায় ১৪২৮ বাংলা সালে ভ্যাটসহ তিন কোটি ৫০ লাখ টাকায় আকবর আলী নামের এক ব্যক্তি এক বছরের জন্য ইজারা নেন।

কিন্তু ওই হাটের হাট পেরিফেরির বাইরে স্থায়ী ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম, জসমত আরী, সিরাজুল হক, ইনছাব আলী, আসাদুল হকসহ অনেকের অভিযোগ, চলতি বছর হাটের ইজারাদার তাদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের বার্ষিক টোল দাবি করে তাদের বারবার তাগাদা দিচ্ছেন। অথচ হাটের ইজারাদারের হাট পেরিফেরির বাইরে টোল আদায়ের কোনো নিয়ম নেই।

ওই ব্যবসায়ীরা আরও জানান, তারা তাদের নিজস্ব জায়গার সামনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে ব্যবসা করছেন। আবার কেউ কেউ ব্যবসার পাশাপাশি তাদের নিজস্ব জায়গায় ইমারত করে ওপরে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন আর নিচে চলছে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। তারপরও তাদের কাছে নিয়ম না মেনে টোল দাবি করা হচ্ছে।

তবে হাটের ইজারাদার আকবর আলী দাবি করেন, বহু বছর ধরেই হাটের ইজারাদাররা এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে তাদের সঙ্গে আলোচনা করেই বার্ষিক টোল ধার্য করে তা আদায় করে আসছেন। অথচ এ বছর তারা কেন টোল দিতে চাচ্ছেন না তা বোধগম্য নয়।

অন্যদিকে হাটে আগত রফিকুল ইসলাম, ইসমাইল হোসেন, মোবারক হোসেন, তমিজ উদ্দিনসহ অনেক ক্রেতা-বিক্রেতা অভিযোগ করেন, হাটের ইজারাদারের লোকজন টোল আদায়ের সময় কোনো নিয়মই মানছেন না। এমনকি তারা টোল আদায়ের তালিকা না টানিয়ে হাটে আগত ক্রেতা-বিক্রেতার কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত টোলের চেয়ে ৮ থেকে ১০ গুণ বেশি টাকা আদায় করছেন। অবশ্য নওগাঁ হাটের ইজারাদার এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, লোকে যত বলে তত নয়।

এ ব্যাপারে তাড়াশ ইউএনও মেজবাউল করিম ইজারাদারের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীদের লিখিত অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এরই মধ্যে ইজারাদার কোন আইনবলে হাট পেরিফেরির বাইরে টোল দাবি করছেন, তা জানাতে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছি। ইজারাদারকে ডেকে বেশি টাকা টোল আদায়ের বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে