পাকশী কফি হাউজে দুর্ধর্ষ চুরি যাওয়া মালামালসহ সংঘবদ্ধ ৫ চোর গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: জুন ৮, ২০২১; সময়: ৭:২২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী : পাকশীর লালন শাহ কফি হাউজে দুর্ধর্ষ চুরির সাথে জড়িত সংঘবদ্ধ ৫ চোরকে মালামালসহ ১৫ মে গভীর রাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। গত ১২ মে চুরির অভিযোগ পাওয়ার পর পাকশী ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক শহীদুল ইসলাম অনুসন্ধান শুরু করেন। কোন উপায়ন্তর না পেয়ে শেষ পর্যন্ত লালন শাহ সেতুর সিসিটিভি’র ভিডিও ফুটেজ দেখে দূর্ধর্ষ এই চুরির সাথে জড়িতদের হদিস মেলে। আটককৃদের রবিবার পাবনা জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত চোরদের মধ্যে রয়েছে মানিকনগর পূর্বপাড়া গ্রামের মামুন (২৬), পাকশী গালর্স স্কুলপাড়ার টগর ওরফে সাগর (২২), ভেড়ামারার বিত্তিপাড়া গ্রামের ইয়াকুব আলী (৫৫), ঝিনাইদহ মধুপাড়া গ্রামের মারুফ হাসান (২৪) ও পাকশী মেরিনপাড়ার লিপু (২৬)।

ফাঁড়ির ইনচার্জ শহীদুল ইসলাম জানান, গত ১২ মে গভীর লালন শাহ সেতুর পাশে মুক্তার হোসেন মুক্তির কফি হাউজে গ্রীল সরিয়ে দুর্ধর্ষ চুরি হয়। সংঘবদ্ধ চোরেরা এসময় কফি হাউজের বড় ডিপ ফ্রিজ, ১টি লম্বা ফ্রিজ, কফি মেশিন, বড় ও ছোট ২টি গ্যাস সিলিন্ডার, গ্যাসের চূলা, ভাতের ৮০টি প্লেট, ১২টি গামলা, ৫০টি সূপের বাটি, চামচ ও ট্রেসহ যাবতীয় কিছু চুরি করে নিয়ে যায়। এই চুরির রহস্য উদঘাটনে শেষ পর্যন্ত লালন শাহ সেতুর সিসিটিভি’র সহযোগিতা নিয়ে অভিযান শুরু করি।

ভিডিও ফুটেজে ওই রাতেই ৪.৪৩ মিনিটের দিকে চুরিকৃত মালামাল ভুটভুটি-নসিমনে করে কুষ্টিয়ার দিকে পাচারের হদিস পাওয়া যায়। ভুটভুটি নসিমন চালকের চেহারা সনাক্ত করে প্রথমে আটক করা হয়। তারই দেয়া তথ্য অনুযায়ী ১৫ মে গভীর রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে অন্যান্য চোর এবং মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করে আসামীদের রবিবার পাবনা জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে