কচুয়ায় শ্বাসরোধ করে জামাতাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

প্রকাশিত: জুন ৪, ২০২১; সময়: ৯:৪৫ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, কচুয়া : চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার ৬নং উত্তর ইউনিয়নের লতিফপুর গ্রামে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মতবিরোধ নিয়ে রবিউল ইসলাম নামে এক জামাতাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। গুরুতর আহত রবিউল ইসলাম বর্তমানে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আহত রবিউল ইসলামের ও পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে রবিউল তার নিজ গৃহে ঘুমিয়ে পড়লে তার শ^শুর তাফাজ্জল হোসেনের নেতৃত্বে ৪/৫জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি রবিউলের হাত পা বেধেঁ মারধর ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় তার ডাক চিৎকারে আশে পাশের বাড়ির লোকজন ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় শুক্রবার ভোরে তাকে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সোহেল ও আমির হোসেন জানান, ডাক চিৎকার শুনে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে রবিউল ইসলামের পা ও হাত বাধা অবস্থা দেখতে পাই। রবিউলের ভাবী রাজিয়া বেগম,ইউসুফ মিয়াসহ অনেকে জানান, রবিউল প্রায় ৮ বছর পূর্বে একই গ্রামের তাফাজ্জল হোসেনের কন্যা হালিমা আক্তারকে পছন্দ করে বিয়ে করেন। বিয়ের পর ইসরাত নামের আড়াই বছরের কন্যা সন্তান তাদের গৃহে রয়েছে। বিভিন্ন সময় তাদের মধ্যে মত বিরোধ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশ হয়। এবং রবিউল ইসলাম তার স্ত্রী ও শ্বশুর পক্ষের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা ও অন্যান্য কারনে তার উপর শ্বশুর পক্ষের লোকজন হামলা করে হত্যার চেষ্টা করতে পারেন বলে তারা দাবি করেন।

অন্যদিকে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানান এলাকাবাসী। খবর পেয়ে কচুয়া থানা পুলিশ কচুয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রবিউলের খোঁজখবর নিয়েছেন।

তবে বক্তব্য জানতে অভিযুক্ত শ্বশুর তাফাজ্জল হোসেনের বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। মুঠোফোনে তিনি মারধরের বিষয়ের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এটি আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার। তবে মেয়ের জামাইয়ের উপর হামলা হয়েছে সকালে শুনেছি।

হাসপাতালে যাননি কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি নাকি হামলা করেছি, একথা জামাইয়ের পক্ষের লোকজন এলাকায় অপপ্রচার চালাচ্ছে। এজন্য তাকে হাসপাতালে দেখতে যাইনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে