সুজানগরে গলায় ফাঁস দিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষিকার আত্মহত্যা

প্রকাশিত: জুন ৪, ২০২১; সময়: ৪:১৩ pm |

এম এ আলিম রিপন : সুজানগর পৌরসভার মোহাম্মাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষিকা মোছা.রাজিয়া সুলতানা (৩৮) গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার(০৪ জুন) সকাল সাতটার দিকে তার নিজ বাসা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের হাসপাতাল পাড়ায় আত্মহত্যার এ ঘটনাটি ঘটেছে।

নিহত শিক্ষিকার স্বামী আবুল কালাম আজাদ সুজানগর সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ছেলে রাফিউল হাসান রাফিদ সুজানগর সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের নমব শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র। সে অষ্টম শ্রেণীর জেএসসি পরিক্ষায় উপজেলার মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছিল। এছাড়া মেয়ে তাসমিন আক্তার মোহাম্মাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণীর একজন মেধাবী শিক্ষার্থী।

নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানাযায়, শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে সবার অজান্তে রাজিয়া সুলতানা ঘরের আড়ার সাথে গামছা পেঁচিয়ে ঝুলতে থাকে। এ সময় পরিবারের লোকজন দেখতে পেয়ে দ্রুত সুজানগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। মোহাম্মাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মাহাতাব উদ্দিন বলেন, রাজিয়া সুলতানা তার প্রতিষ্ঠানের গণিত বিষয়ের একজন মেধাবী শিক্ষিকা ছিলেন। মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সভাপতি একিউএম শামসুজ্জোহা বুলবুল বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক ও মর্মান্তিক।

শিক্ষিকা রাজিয়া সুলতানা কি কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন, প্রকৃত কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে দীর্ঘদিন তিনি অসুস্থ ছিলেন। তার মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। সুজানগর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, নিহত শিক্ষিকা র্দীঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন বলে পরিবার দাবি করেছে। তবে আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ জানতে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ পাবনা জেনারেল হাসপাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে