নাটোরের লালপুর থেকে ১৬ ইমো হ্যাকার আটক

প্রকাশিত: মে ২৬, ২০২১; সময়: ৭:৫৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর : নাটোরের লালপুর থেকে ১৬ ইমো হ্যাকারকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে উপজেলার মোহরকয়া এলাকা থেকে ‘ইমো’ হ্যাকিং করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া চক্রের ওই ১৬ সদস্যকে আটক করা হয়।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিক্তিতে লালপুর উপজেলার মোহরকয়া গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব-৫ এর সিপিসি-২ নাটোর ক্যাম্পের একটি দল। এ সময় মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ ও ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘ইমো’ হ্যাকিং করে প্রতারণাপূর্বক অর্থ হাতিয়ে নেওয়া চক্রের ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ১টি ল্যাপটপ, ৬টি মোবাইল ফোন ও ২টি রাউটার উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার মোহরকয়া গ্রামের এয়ারুল ইসলামের ছেলে পাপ্পু আলী (১৯), বজলুর রহমানের ছেলে আজিম আলী সম্রাট (১৯), চকবাতকয়া গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে অন্তর উদ্দিন ওরফে বিল্লু (১৮), লোকমান হোসেনের ছেলে সজীব আলী (১৮), পাইকপাড়া এলাকার সোহরাব আলীর ছেলে স্বাধীন (১৮)।

পরবর্তীতে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পৃথক অভিযানে উপজেলার মোহরকয়া ভাঙ্গাপাড়াগ্রাম এলাকা থেকে ১টি ট্যাবলেট কম্পিউটার ও ২১টি মোবাইলসহ আরও ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার মোহরকয়া ভাঙাপাড়া গ্রামের আজিজ মোল্লার ছেলে ফরিদ উদ্দিন (২৫), ইয়াসিন আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম (২২), মনসুর রহমানের ছেলে মোহন সরকার (২২), নুর আলম সরকারের ছেলে শাহ পরান সরকার (২০), উত্তর লালপুর পুরাতন বাজার এলাকার সাইফুর রহমান মজনুর ছেলে আশিকুর রহমান বিন্টু (২২), রামকৃষ্ণপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে মোঃ মহিন (২১), মোহরকয়া নতুনপাড়ার ইনছার মন্ডলের ছেলে শাহাবুল ইসলাম (৩৫), মনিহারপুর এলাকার জহুরুল ইসলামের ছেলে রুবেল হোসেন (২৬), নাগশষা এলাকার মৃত ওসমান আলীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৩০), বরকত প্রামাণিকের ছেলে নাজিম আলী (৩০) ও বিলমাড়িয়ার আজাহার মন্ডলের ছেলে আলম হোসেন (৩৭)।

পরে ওই ১৬ জনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়েরের পর লালপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বুধবার দুপুরে নাটোর কার্যালয়ে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফ্রিংয়ে র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক জিয়াউর রহমান তালুকদার এসকল তথ্য জানান।

এসময় নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাউদ্দিনসহ র‌্যাবের অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে