সিরাজগঞ্জে খাদ্য বোঝাই ছিনতাই ট্রাকসহ ৭ ডাকাত গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: মে ২১, ২০২১; সময়: ৪:৪১ pm |
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জ হতে ছিনতাই হওয়া ৩৪২ বস্তা গো-খাদ্য বোঝাই ট্রাক কুষ্টিয়া থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সদর থানা চত্বরে এক সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) স্নিগ্ধ আক্তার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
গ্রেপ্তার ডাকাত সদস্যরা হলো, পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার চর রূপপুর গ্রামের খেরুমালের ছেলে মো. নাছিম আল মাল ওরফে রাজু (২১), পাবনা জেলা সদরের তিনগাছা রাজাপুর গ্রামের নজরুল মোল্লার ছেলে রফিক মোল্লা ওরফে রকিব (১৯), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার তারা সোনিয়া গ্রামের মৃত রহমত মোল্লার ছেলে ইমরান আলী (৫০), একই উপজেলার জয়রামপুর গ্রামের মো. রাব্বানের ছেলে রাজু আহম্মেদ (২৮), মৃত সেকেন প্রামানিকের ছেলে শাহাবুল ইসলাম (৩০), গাছের দিয়ার গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে রোকনুজ্জামান (২৩) ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ধানগড়া জগাইর মোড় গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে নয়ন শেখ (২৮)।
সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধ আক্তার জানান, সাতক্ষীরা ভোমরা বন্দর থেকে আসা ৪০৫ বস্তা গো-খাদ্য বোঝাই ট্রাক সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার কাজিপুর মোড় এলাকায় পৌঁছে গত ১৮ মে রাতে। রাস্তার পাশে ট্রাকটি রেখে চালক-হেলপার ঘুমিয়ে পড়েন।
এ অবস্থায় গত বুধবার (১৯ মে) ভোর রাতে সংঘবদ্ধ ছিনতাই কারীরা হঠাৎ ট্রাকের উপর উঠে চালক-হেলপারকে দেশীয় অস্ত্র ঠেকিয়ে ট্রাক থেকে নামিয়ে দেয়। এক পর্যায়ে তাদের সার্কিট হাউজের পেছনে মারপিট করে ছেড়ে দিয়ে  ট্রাকটি নিয়ে পালায় ডাকাতরা।  পরে বুধবার ভোরে চালক ও হেলপার বিষয়টি থানায় এসে জানায় এবং এ বিষয়ে ট্রাকের মালিক আব্দুল মালেক খন্দকারের সাথে যোগাযোগ করলে ঐদিনই থানায় এসে মামলা করেন তিনি।
মামলার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শণ শেষে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার ও বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে তদন্ত শুরু করা হয়। এরপর বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে জানতে পেরে বৃহস্পতিবার (২০ মে) কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই ৭ জন ডাকাতকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে তাদের দেয়া তথ্যের আসামী শাহাবুল ইসলামের বাড়ি থেকে ৮৭ ও রোকনুজ্জামানে বাড়ি থেকে ২৩৫ মোট ৩৪২ বস্তা গো-খাদ্য উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরো বলেন, ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে আমরা দুর্ধর্ষ ডাকাতদের গ্রেপ্তার করতে পেরেছি। তারা আন্তঃজেলা ডাকাতদলের সক্রিয় সদস্য। মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই ও ডাকাতি করাই ছিল তাদের কাজ।
 সংবাদ সম্মেলনে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দিন ফারুকী, পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মোস্তফা, সিরাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হেলাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
  • 15
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে