সংবাদ প্রকাশের পর চলাচলের রাস্তা পেলো মহাদেবপুরের সেই পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধার পরিবার

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২১; সময়: ৫:০১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, মহাদেবপুর : নওগাঁর মহাদেবপুরে পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের চলাচলের রাস্তায় প্রাচীর তুলে অবরুদ্ধ করে রেখেছে একটি প্রভাবশালী মহল। এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন গত শনিবার (২৪ এপ্রিল) বিভিন্ন অনলাইনে এবং রবিবার (২৫ এপ্রিল) বিভিন্ন জাতীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকায় প্রকাশ হলে ওই দিনই নওগাঁর এনএসআই কর্মকর্তা নার্গিস পারভীন সরেজমিনে আসেন।

ঘটনার সত্যতা পেয়ে তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো মিজানুর রহমান মিলনকে বিষয়টি অবগত করলে তিনি তাৎক্ষণিক সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোসাঃ আসমা খাতুন ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান ধলুকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোসাঃ আসমা খাতুন ওই পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের যাতায়াতের জন্য ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাস্তা বের করার জন্য সদর ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেন।

পরদিন সোমবার (২৬ এপ্রিল) সদর ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান ধলু নিজে দাঁড়িয়ে থেকে নির্মাণাধীন ওই প্রাচীর ভেঙে দিয়ে অবরুদ্ধ পঙ্গু মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের চলাচলের রাস্তা বের করে দেন। ঘটনার মাত্র ৩দিনের মধ্যেই সাংবাদিক ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপে রাস্তা বের হওয়ায় এলাকাবাসীসহ ওই মুক্তিযোদ্ধার পরিবার খুব খুশি।

মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের চলাচলের রাস্তা বন্ধের এ ঘটনাটি ঘটেছিলো শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) উপজেলা সদরের কলাবাগানস্থ এলাকায়। ঘটনার খবর পেয়ে শনিবার সকালে ঘটনাস্থলে মহাদেবপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও অর্থসম্পাদক গিয়ে দেখতে পান, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জাফর আলী উত্তরোরাধীকার সূত্রে তার শাশুড়ির অংশের পোনে ৪ শতক জমি প্রাপ্ত হয়ে বসতবাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। তিনি প্যারালাইসিস হয়ে দীর্ঘ ৬ বছর ধরে অসুস্থ হয়ে বিছানায় পড়ে আছেন। তিনি চলাচল করতে পারেন না। তার স্ত্রী অসুস্থ এবং ১ ছেলে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে বিছানায় পড়ে আছে। এমতবস্থায় তাদের চলাচলের রাস্তাটি প্রতিবেশী নাসির উদ্দিন নিজেদের দাবী করে ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে এসে প্রাচীর তুলে রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়। এমতবস্থায় তাদের বাড়ি থেকে বের হওয়ার মত কোনো রাস্তা না থাকায় তারা বাড়িতেই অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হলে প্রশাসনের সহযোগিতায় ভুক্তভোগী পরিবারকে চলাচলের রাস্তা বের করে দেয়া হয়। এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জাফর আলী জানান, তাদের বাড়ি থেকে বের হওয়ার একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ায় তারা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছিলেন। সাংবাদিক ও প্রশাসনের সহযোগীতায় চলাচলের রাস্তা পেয়ে তিনি খুব খুশি। তিনি সাংবাদিক ও প্রশাসনের লোকজনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। সদর ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান ধলু জানান, সাংবাদ মাধ্যমে জেনে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্মাণাধীন প্রাচীর ভেঙে দিয়ে অবরুদ্ধ মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের চলাচলের রাস্তা বের করে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোসাঃ আসমা খাতুন জানান, জমিটি ওই মুক্তিযোদ্ধার শাশুড়ির জমি ছিলো, সেই সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে ওই মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ও তার ভাই প্রাপ্ত হয়ে বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর ভাই কোনো জায়গা না ছাড়ায় প্রতিপক্ষ নাসির উদ্দিন এ প্রাচীর নির্মাণ করেন। বর্তমানে প্রাচীর ভেঙে দিয়ে রাস্তা বের করে দেয়া হয়েছে এবং উভয়পক্ষ ২ ফিট করে জায়গা ছেড়ে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে রাস্তা দিতে সম্মত হয়েছেন।

  • 47
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে